চকরিয়ায় নিহত ৫ ভাই: সেই পিকআপ চালক গ্রেপ্তার

অনলাইন ডেস্কঃ
চাঞ্চল্যকর ও আলোচিত কক্সবাজারের চকরিয়ায় বাবার শ্রাদ্ধানুষ্ঠান শেষে বাড়ি ফেরার পথে বেপরোয়া গতির পিকআপভ্যানের চাপায় পাঁচ ভাই নিহতের ঘটনায় ঘাতক পিকআপচালককে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব। গ্রেফতার পিকআপচালকের নাম সাহিদুল ইসলাম ওরফে সাইফুল।

শুক্রবার (১১ ফেব্রুয়ারি) রাতে রাজধানীর মোহাম্মদপুর এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

রাতে জাগো নিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন র‍্যাবের লিগ্যাল আ্যন্ড মিডিয়া উইংয়ের সহকারী পরিচালক এএসপি আ ন ম ইমরান খান।

তিনি বলেন, কক্সবাজারের চকরিয়ার সুরেশ চন্দ্র সুশীল গত ৩০ জানুয়ারি মারা যান। গত মঙ্গলবার (৮ ফেব্রুয়ারি) ভোরে বাবার শ্রাদ্ধ শেষে মন্দির থেকে বাড়ি ফেরার সময় রাস্তা পার হতে গিয়ে পিকআপভ্যানের চাপায় পাঁচ ভাই নিহত হন। ঘটনাস্থলে চারজন ও হাসপাতালে নেওয়ার পর একজন মারা যান।

নিহত পাঁচ ভাই হলেন- ডুলাহাজারা ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ডের রিংভং সগীরশাহ কাটা হাসিনা পাড়া এলাকার মৃত ডা. সুরেশ চন্দ্র শীলের ছেলে ডা. অনুপম শীল (৪৬), নিরুপম শীল (৪০), দীপক শীল (৩৫), চম্পক শীল (৩০) ও স্মরণ শীল (২৯)।

গুরুতর আহত আরেক ভাই রক্তিম শীল (৩২) চট্টগ্রাম নগরের একটি বেসরকারি হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে ভর্তি রয়েছেন। আরেক ভাই প্লাবন শীল (২৫) চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ও বোন হীরা শীল (২৮) চকরিয়ার মালুমঘাট খ্রিস্টান মেমোরিয়াল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

ঘটনার রাতেই নিহতদের আরেক ভাই প্লাবন চন্দ্র শীল বাদী হয়ে অজ্ঞাত পিকআপভ্যান চালককে আসামি করে চকরিয়া থানায় মামলা করেন। মামলা নং-১৫।

এ মর্মান্তিক দুর্ঘটনা দেশজুড়ে আলোচনার সৃষ্টি হয় জানিয়ে র‍্যাবের এ কর্মকর্তা বলেন, এ ঘটনার পর প্রিন্ট, ইলেকট্রনিক ও অনলাইন মিডিয়ায় অত্যন্ত গুরুত্বের সঙ্গে সংবাদ প্রচার হয়। ঘটনার পর থেকে র‍্যাব সদরদপ্তরের গোয়েন্দা নজরদারি বাড়ানো হয়। এরই ধারাবাহিকতায় শুক্রবার রাতে রাজধানীর মোহাম্মদপুর এলাকা থেকে পলাতক পিকআপচালক সাইফুলকে গ্রেফতার করা হয়।

এ বিষয়ে আগামীকাল শনিবার (১২ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে কারওয়ান বাজার র‍্যাব মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বিস্তারিত জানানো হবে বলেও জানান এএসপি আ ন ম ইমরান খান।

সূত্রঃ জাগোনিউজ