রাজারকুলে শ্মশান নিয়ে বিরোধের অবসান, সাইনবোর্ড স্থাপনে গ্রামবাসীর স্বস্তি

রামু প্রতিনিধিঃ
রামু উপজেলার রাজারকুল ইউনিয়নের ঐতিহাসিক রামকোট তীর্থধাম সংলগ্ন রাজারকুল শর্মা পাড়া রামকোট হিন্দু পাড়া সার্বজনীন মহা শ্মশান নিয়ে দীর্ঘদিনের বিরোধের অবসান হয়েছে। জানা গেছে- শ্মশানে অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া সম্পন্ন করা নিয়ে হিন্দু সম্প্রদায়ের দুটি গোত্রের মধ্যে বিরোধ চলছিলো। কক্সবাজার-৩ (সদর-রামু-ঈদগাঁও) আসনের সংসদ সদস্য সাইমুম সরওয়ার কমলের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় অবশেষে বিরোধ নিষ্পত্তি হয়েছে।

এরই প্রেক্ষিতে আরাকান সড়কের পার্শ্ববর্তী এ শ্মশানের সীমানা প্রাচীরে সোমবার (৭ ফেব্রুয়ারি) সাইনবোর্ড স্থাপন করা হয়েছে। সাইনবোর্ডে উল্লেখ করা হয়েছে- “রাজারকুল শর্মাপাড়া রামকোট হিন্দুপাড়া সার্বজনীন মহা শ্মশান, মা মগধেশরী ও কালী মন্দির”।

এলাকাবাসী জানান- নতুন সাইনবোর্ড স্থাপনের মাধ্যমে রাজারকুল শর্মা পাড়া ও রামকোট হিন্দু পাড়ার বাসিন্দারা আনন্দিত। চলমান বিরোধ নিষ্পত্তি হওয়ায় এলাকাবাসী কক্সবাজার-৩ (সদর-রামু-ঈদগাঁও) আসনের সংসদ সদস্য সাইমুম সরওয়ার কমল, রামু উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রণয় চাকমা, বাংলাদেশ হিন্দু ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের ট্রাষ্টি বাবুল শর্মা, রামু উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক তপন মল্লিক সহ সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন। এছাড়াও গ্রামবাসী এ শ্মশানের জন্য ভূমিকা পালনকারি কক্সবাজার জেলা হিন্দু সম্প্রদায়ের বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবৃন্দের প্রতিও কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন।