টিকটক ভিডিও শেষে ধর্ষণের শিকার মাদরাসাছাত্রী, প্রেমিক পলাতক

অনলাইন ডেস্কঃ
নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলায় টিকটকের জন্য ভিডিও শুটিং শেষে কথিত প্রেমিকের ধর্ষণের শিকার হয়েছে এক কিশোরী (১৪)। এ ঘটনায় তিন সহায়তাকারীকে ধরে পুলিশে সোপর্দ করেছে এলাকাবাসী।

বৃহস্পতিবার (৩ ফেব্রুয়ারি) ধর্ষণ মামলার পর তাদের গ্রেফতার দেখানো হয়। ঘটনার পর থেকে পলাতক মূল আসামি বিল্লু। তাদের সবার বয়স ১৮-এর নিচে বলে জানা গেছে। ধর্ষণের শিকার ওই কিশোরী স্থানীয় একটি মাদরাসার ছাত্রী।

এ ঘটনায় পাঁচজনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাতপরিচয় তিনজনকে আসামি করে বন্দর থানায় একটি মামলা করেছেন ওই কিশোরীর নানি।

পুলিশ জানায়, টিকটক ভিডিও বানানোর জন্য বুধবার (২ ফেব্রুয়ারি) ওই কিশোরীকে তার নানির বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায় প্রেমিক বিল্লুসহ পাঁচ টিকটকার। কলাগাছিয়া ইউনিয়নের সাবদী এলাকায় তারা রাত পর্যন্ত টিকটক ভিডিওর শুটিং করে। রাত সাড়ে ৯টার দিকে ইস্পাহানি মাঝির গল্লী এলাকার নির্জন জায়গায় নিয়ে কথিত প্রেমিক তাকে ধর্ষণ করে।

ধর্ষণের সময় বিল্লুর চার সহযোগী ঘটনাস্থল পাহারা দেয়। এসময় এলাকাবাসী ধর্ষণের বিষয়টি আঁচ করতে পেরে তিন সহযোগীকে আটক করে। কৌশলে প্রেমিক ও দুই সহযোগী পালিয়ে যায়।

বন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দীপক চন্দ্র সাহা ধর্ষণের ঘটনায় মামলা ও তিনজনকে গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

সূত্রঃ জাগোনিউজ