লামায় ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে বর্ণাঢ্য আনন্দ র‌্যালি

মোঃ নাজমুল হুদা, লামাঃ
বান্দরবানের লামায় ছাত্রলীগের ৭৪তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে বর্ণাঢ্য আনন্দ র‌্যালি বের হয়। মঙ্গলবার (৪ জানুয়ারি,২০২১ ইং) সকালে লামা উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গনে ছাত্রলীগের উদ্যোগে সর্বস্থরের নেতা-কর্মীরা প্রথমে স্মৃতিস্থম্ভে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে ফুলেল শ্রদ্ধাষ্পদ অর্পণ করা হয়। সেখানে থেকে বর্ণাঢ্য আনন্দ র‌্যালি বের হয়ে শহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে জেলা পরিষদ গেস্ট হাউজ মিলনায়তনে এসে শেষ হয়।পরে সবার অংশগ্রহনে জন্মদিনের কেক কাটা অনুষ্ঠিত হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন লামা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও সাবেক ছাত্রনেতা মোঃ মোস্তফা জামাল, লামা উপজেলা আ. লীগের সম্পাদক ও পৌর মেয়র মোঃ জহিরুল ইসলাম, উপজেলা আ.লীগের সভাপতি ইউপি চেয়ারম্যান বাথোয়াইচিং মার্মা, বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্যদ্বয় বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ মাহবুবুর রহমান ও নারীনেত্রী ফাতেমা পারুল,দুই ভাইস চেয়ারম্যান মিল্কি রাণী দাশ,মোঃ জাহেদ উদ্দিন, উপজেলা আ.লীগের সহ সভাপতি প্রশন্ন ভট্টাচার্য, সাংগঠনিক সম্পাদকদ্বয় প্রদীপ কান্তি দাশ, মোঃ আলমগীর, ছাত্রলীগের মংকহ্লা মার্মা,মোঃ শাহীন,রাকিব,রনি,বিপ্লব,সুৃমন,সাদ্দাম, নাহিদ,সজীব প্রমূখ।

প্রসংগত,বাংলা ও বাঙালির স্বাধীনতা ও স্বাধিকার অর্জনের লক্ষ্যেই মূল দল আ.লীগের জন্মের এক বছর আগেই প্রতিষ্ঠা পেয়েছিল গৌরব ও ঐতিহ্যের এ ছাত্র সংগঠনটি।১৯৪৮ সালের ৪ জানুয়ারি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সংগঠনটি প্রতিষ্ঠা করেন।তাঁর নেতৃত্বেই ঐদিন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফজলুল হক হলে অনুষ্ঠানিকভাবে এর যাত্রা শুরু হয়।

তৎকালীন তরুণ নেতা শেখ মুজিবের পৃষ্ঠপোষকতায় এক ঝাঁক তরুণ মেধাবীর উদ্যোগে সেদিন যাত্রা শুরু করে ছাত্রলীগ। ৭৪ বছরে ছাত্রলীগের ইতিহাস হচ্ছে জাতির ভাষার অধিকার প্রতিষ্ঠা, মুক্তির স্বপ্ন বাস্তবায়ন, স্বাধীনতার লাল সূর্য ছিনিয়ে আনা,গণতন্ত্র ও প্রগতির সংগ্রামকে বাস্তব রুপদানের ইতিহাস। প্রতিষ্ঠার পর থেকেই প্রতিটি গণতান্ত্রিক ও প্রগতির সংগ্রামে নেতৃত্ব দিয়েছে এবং চরম আত্মত্যাগের বিনিময়ে বিজয় ছিনিয়ে এনেছে ছাত্রলীগ।