জনগণের মূল্যায়নেই ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী হবো : চাকমারকুলের তরুন ব্যবসায়ী এন আলম

নিজস্ব প্রতিবেদক, রামুঃ
জনগণের মূল্যায়নেই ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী হতে চান, রামু উপজেলার চাকমারকুলের তরুন ব্যবসায়ী এন আলম। আসন্ন ইউপি নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী হিসেবে আওয়ামী লীগের একনিষ্ঠ কর্মী এন আলম গ্রুপের চেয়ারম্যান এইচ এম নুরুল আলম প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন। ইতিমধ্যে জেলা ও উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ তাঁকে দলীয় প্রার্থী হিসেবে কাজ করার নির্দেশ দিয়েছেন বলেও তিনি জানিয়েছেন। শুক্রবার (১ অক্টোবর) বিকালে রামু উপজেলার চাকমারকুল ইউনিয়নে এন আলম গ্রুপের কার্যালয়ে এক মতবিনিময় সভায় সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের একজন নিঃস্বার্থ কর্মী হিসেবে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নৌকা প্রতীকের দাবিদার বলেও তিনি জোরদাবী করেন। এইচ এম নুরুল আলম ব্যক্তিগত জীবনে বিভিন্ন ব্যবসায়ীক সংগঠনের সাথে জড়িত। তিনি দীর্ঘদিন ধরে কক্সবাজার চেম্বার অফ কমার্স এর পরিচালক হিসাবে দায়িত্বরত আছেন। এ ছাড়া জাতীয়ভাবেও বিভিন্ন ব্যবসায়ীক সংগঠনে সুনামের সহিত দায়িত্বপালন ও কর্ম পরিকল্পনা প্রণয়ন করে যাচ্ছেন।

নির্বাচিত হলে জন্ম নিবন্ধন, ওয়ারিশ সনদ, মৃত্যু সনদ, জাতীয়তা সনদ এর জন্য কোন রকম ফি চাকমারকুল ইউনিয়নবাসীদের দিতে হবে না এবং ওই সব খাতের জন্য সরকারে রাজস্বখাতের টাকা তিনি নিজ অর্থব্যয়ে আদায় করবেন বলে প্রতিশ্রুতি দেন। জনমত জরিপে তিনি শীর্ষস্থানে আছেন বলেও দাবি করেন। মতবিনিময় সভায় রামু উপজেলার প্রিন্ট ও অনলাইন মিডিয়ার সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।

আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী তরুন ব্যবসায়ী এন আলম সাংাবদিকদের জানান, করোনা মহামারী বিপর্যস্থ সময়ে করোনায় কর্মহীন ও অসহায় মানুষের মাঝে ত্রান সহায়তা দিয়েছেন তিনি। এখনও সহায়দের পাশে থেকে সমাজ উন্নয়নের কাজ করে যাচ্ছেন। এলাকায় অধিকতর উন্নয়ন করার লক্ষে গঠন করেছেন এন আলম ফাউন্ডেশন। জনপ্রতিনিধি না হয়েও এন আলম ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে চাকমারকুল ইউনিয়নের প্রতিটি ওয়ার্ডের সমস্যা চিহ্নিত করে, উন্নয়ন কর্মকান্ড পরিচালনা করে যাচ্ছেন। নিজ ইউনিয়নে একনিষ্ঠভাবে উন্নয়ন কর্মকান্ড চালানোর কারণেই এলাকার মানুষের আন্তরিকতায় বন্দী হয়ে পড়েছেন। চাকমারকুল ইউনিয়ন বাসির আন্তরিক দাবিতে আগামী ১১ নভেম্বর অনুষ্ঠিতব্য ইউপি নির্বাচনে প্রার্থীর হওয়ার সংকল্পবদ্ধ হয়েছেন। জেলা ও উপজেলা আওয়ামী লীগ থেকেও তাকেই মাঠ পর্যায়ে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী হিসেবে কাজ করতে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে বলেও তিনি সাংবাদিকদের জানান। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী হিসেবে যদি নৌকা প্রতীক বঞ্চিত হই, তবুও চাকমারকুলবাসী ভালোবাসা নিয়ে আসন্ন ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার ঘোষনা দেন। তিনি বলেন, চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে দীর্ঘদিন ধরে গণসংযোগ চালিয়ে যাচ্ছি। আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের সকল পর্যায়ের নেতাকর্মীদের সাথে যোগাযোগ রয়েছে। তিনি বর্ণ বৈষম্য না রেখে সকল প্রকার মানুষের জন্য কাজ করেন। নিজের সামর্থ অনুযায়ী গরিব দুঃখী মানুষের পাশে দাঁড়ান। প্রতিনিয়ত উঠান বৈঠক, মতবিনিময় সভাসহ নানাভাবে জনগনের সাথে সম্পৃক্ত রয়েছেন।

সমাজসেবক এন আলম বলেন, মাদক মুক্ত নেশা মুক্ত, দূর্নীতি মুক্ত সন্ত্রাস মুক্ত সমাজ গঠনে কাজ করাই আমার লক্ষ্য। রাজনীতি আমার নেশা বা পেশা না, তাই মানুষের জন্য কাজ করতে চাই মানুষের ভালবাসা অর্জন করতে চাই। চাকমারকুলকে আমি একটি ডিজিটাল ইউনিয়ন হিসেবে গড়ে তোলার প্রত্যয়ে কাজ করবো ইনশাআল্লাহ। বাংলাদেশের মাননীয় প্রধান-মন্ত্রীর রুপকল্প ২০৪১ বাস্তবায়ন করার জন্য নিরলস ভাবে কাজ করে যাব। আমি কথায় নয় কাজে বিশ্বাসী। জনগণের মূল্যায়নেই আসন্ন চাকমারকুল ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী হবো। জনপ্রিয়তা শীর্ষে থেকে চাকমারকুলের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হবো ইনশাআল্লাহ।