গর্জনিয়ায় তৈয়ব উল্লাহ চৌধুরীর প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত

নিজস্ব প্রতিবেদক :
বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে ১৯ সেপ্টেম্বর রামুর গর্জনিয়া ইউনিয়নের কিংবদন্তী পুরুষ, মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক ও গর্জনিয়া ইউপির পাঁচবারের নির্বাচিত সাবেক সফল চেয়ারম্যান তৈয়ব উল্লাহ চৌধুরীর প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত হয়েছে।

এ উপলক্ষে ১৯ সেপ্টেম্বর সকালে গর্জনিয়া কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে খতমে কোরআন ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করেন পোয়াংগেরখিল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি সাংবাদিক হাফিজুল ইসলাম চৌধুরী। এর পর আলেমগণকে সঙ্গে নিয়ে আমির আলি চৌধুরী জামে মসজিদ কবরস্থানে তৈয়ব উল্লাহ চৌধুরীর কবর জিয়ারত, ফাতেহা পাঠ ও দোয়া করেন হাফিজুল ইসলাম চৌধুরী। এসময় গর্জনিয়া ইসলামিয়া আলিম মাদ্রাসার সভাপতি ফরিদ আহমদ চৌধুরী, গর্জনিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের সভাপতি সলিম উল্লাহ চৌধুরীসহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।

তৈয়ব উল্লাহ চৌধুরীর প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে গর্জনিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের আয়োজনে দুপুরে স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়।
বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কায়ছার জাহান চৌধুরীর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন পার্লস বাংলাদেশের প্রধান নির্বাহী মো. সাইফুল ইসলাম চৌধুরী কলিম, বিদ্যালয়ের সভাপতি সলিম উল্লাহ চৌধুরী, সদস্য আরিফুল ইসলাম পান্নু ও শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।

বক্তারা বলেন- তৈয়ব উল্লাহ চৌধুরী ছিলেন কক্সবাজারের রামুর দুর্গম জনপদ বৃহত্তর গর্জনিয়ার শোষিত বঞ্চিত নির্যাতিত মানুষের জননেতা। জনগণের ভাষা, স্বার্থ, মনের কথা তিনি বুঝতে পারতেন। বিপন্ন মানুষ রক্ষা এবং সেবার মধ্যদিয়ে তিনি সাধারণ ছাত্রনেতা হতে গণমানুষের নেতায় পরিণত হন। মানুষের দুঃখ কষ্টে পাশে থাকাই ছিল তাঁর প্রশান্তি।