পায়ের আঙুলে ব্যথা হওয়ার কারণ ও করণীয়

লাইফস্টাইল ডেস্কঃ
পায়ের আঙুলের সামান্য ব্যথাই অসহনীয়। আর এই অঙ্গে ব্যথা হওয়ার নানান কারণও রয়েছে। নিউ ইয়র্কের ‘পডায়েট্রিস্ট’ ব্র্যাড শেফার (ডিপিএম) বলেন, “সিংহভাগ পেশির ব্যথা নিয়েই দুশ্চিন্তার কোনো কারণ থাকে না, সেগুলো নিজেই সেরে যায়। তবে পেশি শক্ত হয়ে তাতে যখন টান পড়ে তখন অবস্থা বেগতিক হয়ে যায়।”

ব্যাথার কারণ

ডা. শেফার বলেন, “শরীরের কোনো অংশের পেশি যখন সংকুচিত হওয়ার পর যখন সঙ্গে সঙ্গে স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসতে পারে না তখনই ব্যথা, রগে টান পড়া এমন অনুভূতি সৃষ্টি হয়।”

রিয়েলসিম্পল ডটকম’য়ে প্রকাশিত প্রতিবেদনে এই ‘পা’ বিশেষজ্ঞ আরও বলেন, “সাধারণত এই ধরনের পরিস্থিতি কয়েক সেকেন্ড স্থায়ী হয়। পায়ের আঙুলের ব্যথার কারণ হয় পায়েরই কোনো অংশের পেশির সংকোচনের কারণে। এই পেশিগুলোকে বলা হয় ‘এক্সট্রিনসিক মাসল’।

নিউ ইয়র্কের ‘ফুট অ্যান্ড অ্যাঙ্কেল সার্জন’ জ্যাক লেভেনসন বলেন, “যখন কারও পায়ের আঙুলের ব্যথা দেখা দেয়, সেটার কারণ হয় পায়ের এমন কোনো পেশির সংকোচন যেটার সঙ্গে পায়ের পাতা কিংবা আঙুলের সংযোগ আছে। আবার পায়ের পাতার কোনো পেশি যেটার সঙ্গে আঙুলের যোগাযোগ আছে সেটার সংকোচনের কারণেও হতে পারে।”

পায়ের আঙুলে ব্যথার বিভিন্ন কারণ

বিভিন্ন কারণেই পায়ের আঙুলে টান পড়া বা ব্যথা হতে পারে।

পানির অভাব: পায়ের আঙুলে ব্যথা হওয়ার সবচাইতে সাধারণ কারণ হলো পানিশূন্যতা। তবে গবেষণায় আরও জটিল কারণও বেরিয়ে এসেছে।

স্কটল্যান্ডের ‘সেন্ট অ্যান্ড্রুজ ইউনিভার্সিটি’র করা গবেষণার ফলাফলে জানানো হয়, অতিরিক্ত পানি পান করা থেকেও ব্যথা দেখা দিতে পারে। এর কারণ হল অতিরিক্ত পানি পান করার কারণে শরীরে ‘ইলেক্ট্রোলাইট’য়ের অভাব তৈরি হওয়া।

পুষ্টির অভাব: ডা. লেভেনসন বলেন, “ভিটামিন বি’য়ের বিভিন্ন ধরণ, পটাশিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম এবং সোডিয়াম’য়ের অভাব থেকে পায়ের আঙুলে ব্যথা হতে পারে।”

পেশির ওপর বাড়তি ধকল: হুট করে শরীরের কোনো পেশির ওপর অতিরিক্ত চাপ পড়লে সাময়িক ব্যথা হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। অনেকদিন পর ব্যায়াম কিংবা খেলাধুলা করলে যেমনটা হয়।

পায়ের আঙুলের সঙ্গে সম্পর্ক আছে এমন কোনো পেশির ওপর চাপ পড়লেও ব্যথা হওয়া সম্ভব। তবে এটা কিছু মানুষের হয় আবার কিছু মানুষের হয় না। আর কেনো এমনটা হয় তা আজও অজানা।

শরীরচর্চার অভাব: পেশির ওপর উপর্যুপরি ধকল গেলে যেমন ব্যথা হয়, তেমনি একেবারে কোনো চাপ না পড়লেও পেশিতে ব্যথা হওয়া সম্ভব। এর কারণ হল, একটা লম্বা সময় ধরে যে পেশি ব্যবহার হচ্ছে না, সেখানে রক্তপ্রবাহ কমে যায়। তাই নিয়মিত শরীরচর্চা মধ্যে থাকা উচিত, যাতে সকল পেশিতে রক্ত সঞ্চালন স্বাভাবিক থাকে।

জুতার সমস্যা: ভুল মাপের জুতা পরার কারণে পায়ের আঙুলে ব্যথা হওয়া খুব স্বাভাবিক ঘটনা। জুতা অনেক আঁটসাঁট হলে তা পরে থাকা অবস্থায় রক্ত সঞ্চালন বাধা পায়। আবার জুতার কারণে পা যদি অস্বাভাবিক অবস্থায় থাকে তবে সে কারণেও আঙুলে ব্যথা হতে পারে। পায়ের অন্য কোথাও ব্যথা হতে পারে। তাই এমন জুতা পরা উচিত যা আরামদায়ক।

রোগের পরিণতি: ‘মাল্টিপল এসক্লেরোসিস’ বা নরম কোষকলার কাঠিন্য হওয়ার সমস্যা, ‘পারকিনসন’স ডিজিজ’, ডায়াবেটিস ইত্যাদিসহ নানান রোগের কারণে পায়ের আঙুলে ব্যথা হয়।

গর্ভাবস্থা: গর্ভবতী হলে পেশিতে টান পড়া, ব্যথা হওয়া নিত্যদিনের ঘটনা।

সারানো উপায়

– যেই পেশিতে টান পড়েছে সেখানে আলতোভাবে মালিশ করতে হবে।

ডা. শেফার বলেন, “টান পড়া অবস্থায় ওই পেশিকে ঝাঁকানো যাবে না। এতে স্থায়ী আঘাত পেতে পারেন। আলতোভাবে মাসাজ করতে পারেন, ধীরে ধীরে টানতে হবে, গোল কিছু ওই অংশের ওপর ডলতে পারেন।”

– উষ্ণ স্যাঁক দিলে আরাম হবে।

– পানি পান করতে হবে।

– নিয়মিত শরীরচর্চা ও স্ট্রেচিং করতে হবে।

– ‘ইলেক্ট্রোলাইট’ ও পুষ্টি উপাদানের অভাবে ব্যথা হতে পারে। তাই ‘ইলেক্ট্রোলাইট’ আছে এমন কিছু যদি খাওয়া যায় তবে উপকার পাওয়া যাবে।

– জুতা খুলে খালি পায়ে হাঁটলেও উপকার পাওয়া যায়।

সূত্রঃ বিডিনিউজ