স্থাবর–অস্থাবর সম্পদ মানবসেবায় দানের ঘোষণা তোফায়েল আহমেদের

অনলাইন ডেস্কঃ
আর্তমানবতার সেবায় প্রতিষ্ঠিত ‘তোফায়েল আহমেদ ফাউন্ডেশনে’ সব স্থাবর–অস্থাবর সম্পদ দান করার ঘোষণা দিয়েছেন ভোলা-১ আসনের সাংসদ তোফায়েল আহমেদ। রোববার বেলা সাড়ে ১১টায় ভোলা সদর উপজেলা চত্বরে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে ভার্চ্যুয়ালি যুক্ত হয়ে এই ঘোষণা দেন আওয়ামী লীগ নেতা তোফায়েল আহমেদ।

অনুষ্ঠানে শারীরিক প্রতিবন্ধী যুবক মো. মিজানুর রহমানের কর্মসংস্থানের জন্য ‘তোফায়েল আহমেদ ফাউন্ডেশনের’ পক্ষ থেকে একটি ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা (ইজিবাইক) দেওয়া হয়।

২০১৬ সালে প্রতিষ্ঠা করা হয় তোফায়েল আহমেদ ফাউন্ডেশন। এ ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাকালীন চেয়ারম্যান তোফায়েল আহমেদ। মহাসচিবের দায়িত্ব পালন করছেন জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মইনুল হোসেন বিপ্লব।
বিজ্ঞাপন

অনুষ্ঠানে সাবেক বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল বলেন, এই ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে দরিদ্র মানুষের জন্য হাসপাতাল, বৃদ্ধাশ্রম, শিক্ষাবৃত্তিসহ আর্তমানবতার সেবামূলক কাজ পরিচালিত হবে। তিনি বলেন, ‘আমার মায়ের নামে বাংলাবাজারে বৃদ্ধাশ্রম গড়ে তুলেছি। যেখানে বৃদ্ধ-নারীদের মায়ের মতো সেবা দেওয়া হচ্ছে। শুধু ভোলা নয়, এই ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে সারা দেশের অসহায় দরিদ্র মানুষের জন্য কাজ করা হবে।’

সাংসদ বলেন, ভোলার উপশহর বাংলাবাজারে গড়ে তোলা হয়েছে আজাহার ফাতেমা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল। এই হাসপাতাল তোফায়েল আহমেদ ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে পরিচালিত হবে। মেডিকেল কলেজের দায়িত্বে রয়েছেন তাঁর মেয়ে চিকিৎসক তাসলিমা মুন্নী। যেখানে বিনা টাকায় গরিব মানুষ চিকিৎসাসেবা পাবেন। এ সময় তিনি তাঁর জীবনের সব সম্পদ ফাউন্ডেশনে দান করার ঘোষণা দেন।

বঙ্গবন্ধুর স্মৃতিচারণা করে তোফায়েল আহমেদ বলেন, ‘তিনি (বঙ্গবন্ধু) আমাকে অতি স্নেহ করতেন। তাঁর রাজনৈতিক সচিব করেছিলেন। বঙ্গবন্ধুর কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সফলভাবে রাষ্ট্র পরিচালনা করছেন। রাষ্ট্রনায়ক হিসেবে তিনি সারা বিশ্বে প্রশংসিত।’

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ভোলার জেলা প্রশাসক মো. তৌফিক-ই-লাহী চৌধুরী, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবদুল মমিন, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান মো. মোশারফ হোসেন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মিজানুর রহমান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম গোলদার, তোফায়েল আহমেদ ফাউন্ডেশনের মহাসচিব মইনুল হোসেন, প্রেসক্লাব সভাপতি এম হাবিবুর রহমান প্রমুখ।

সূত্র: প্রথম আলো