শিশু অপরাধীর সর্বোচ্চ সাজা ১০ বছর, হাইকোর্টের রায়

অনলাইন ডেস্কঃ
শিশু অপরাধীদের বিচারের ক্ষেত্রে এতদিন যে নানা রকমের অসঙ্গতি ছিল, সেসব দূর করে রায় দিয়েছেন দেশের উচ্চ আদালতের তিন সদস্যের হাইকোর্টের বৃহত্তর বেঞ্চ। আদালত রায়ে স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন, ‘শিশুদের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দির কোনো সাক্ষ্যগত মূল্যই নেই। অপরাধ যাই হোক, শিশুকে ১০ বছরের বেশি দণ্ড দেয়া যাবে না।’

রায়ের তিনটি সিদ্ধান্ত হলো- শিশুর স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দির কোনো সাক্ষ্যগত মূল্য নেই। স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি কোনো শিশুকে সাজা দেয়ার ক্ষেত্রে ভিত্তি হিসেবে ব্যবহার করা যাবে না। অপরাধ যাই হোক না কেন একজন শিশুকে ১০ বছরের বেশি সাজা নয়।

হাইকোর্টের বিচারপতি মো. শওকত হোসেন, বিচারপতি মো. রুহুল কুদ্দুস ও বিচারপতি এএসএম আব্দুল মবিনের সমন্বয়ে গঠিত বৃহত্তর বেঞ্চের বিচারপতিদের স্বাক্ষরের পর রায়টি প্রকাশিত হয় বলে বৃহস্পতিবার (৪ মার্চ) সাংবাদিকদের জানান আইনজীবীরা।

রায়ে যে বিষয়সমূহে সিদ্ধান্ত দেয়া হয়েছে

ক. শিশুর স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি গ্রহণ জুবেনাইল বিচার পদ্ধতির ধারণার পরিপন্থী।

খ. নিউরোসাইন্স এবং সাইকোলজিক্যাল গবেষণা অনুযায়ী শিশুরা তাদের কর্মের পরিণতি সম্পর্কে সম্পূর্ণ ওয়াকিবহাল নয়।

সূত্রঃ জাগোনিউজ