গর্জনিয়া থেকে সর্বপ্রথম কোভিড-১৯ টিকা নিলেন সাংবাদিক হাফিজ

নিজস্ব প্রতিবেদক:
করোনা সম্মূখযোদ্ধা হিসাবে রামুর গর্জনিয়া ইউনিয়নের বোমাংখিল গ্রামের কৃতি সন্তান, পোয়াংগেরখিল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি সাংবাদিক হাফিজুল ইসলাম চৌধুরী করোনাভাইরাসের টিকা নিয়েছেন।

গর্জনিয়া ইউনিয়ন থেকে প্রথম ব্যক্তি হিসাবে তিনি এ টিকা নিলেন।

মঙ্গলবার (৯ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সাংবাদিক হাফিজুল ইসলাম চৌধুরী টিকা নেন। হাফিজ নাইক্ষ্যংছড়ি প্রেসক্লাবের তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক। তিনি আবার ছাত্রলীগের মানবিক নেতা হিসাবে সর্বমহলে পরিচিত।

নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আবু জাফর ছলিম বলেন- সাংবাদিক হাফিজুল ইসলাম চৌধুরী তরুণ হলেও করোনা সম্মূখযোদ্ধা হিসাবে টিকা পেয়েছেন। এখন অন্যান্যদের উৎসাহ আরও বৃদ্ধি পাবে।

টিকা নেওয়ার পর এক প্রতিক্রিয়ায় সাংবাদিক ও ছাত্রলীগ নেতা হাফিজুল ইসলাম চৌধুরী বলেছেন, টিকা নিয়ে একটি মহল অপপ্রচার চালাচ্ছে। অপপ্রচার বন্ধে তিনি নিজ আগ্রহেই টিকা নিয়েছেন। এটি বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকারের আরও একটি বড় সাফল্য।

উল্লেখ্য: করোনাকালিন সময়ের শুরু থেকে রামুর গর্জনিয়া ইউনিয়নের অলিগলিতে মাইক হাতে নিয়ে প্রচারণা চালান সাংবাদিক হাফিজুল ইসলাম চৌধুরী। নিজ উদ্যোগে জনসাধারণকে বিতরণ করেন স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী। লকডাউন ও হোম কোয়ারেন্টাইন বাস্তবায়নে প্রশাসনের সঙ্গে বিরামহীনভাবে কাজ করেন। লকডাউনের সময় একান্ত ব্যক্তিগত উদ্যোগে খাদ্য সামগী নিয়ে কর্মহীন এবং অসহায় দরিদ্র পরিবারগুলোর দুয়ারে দুয়ারে ছুটে যান সাংবাদিক ও ছাত্রলীগ নেতা হাফিজুল ইসলাম চৌধুরী। করোনা ভাইরাসে আক্রান্তদের সেবায়ও নিয়োজিত ছিলেন তিনি।