রামুতে অবৈধ ইটভাটায় পরিবেশ অধিদপ্তরের অভিযান

নিজস্ব প্রতিবেদক, রামুঃ
রামুতে অবৈধ ইটভাটায় অভিযান চালিয়েছে পরিবেশ অধিদপ্তর। কক্সবাজার জেলায় ১০৫ টি ইটভাটার মধ্যে অবৈধ ৬২ টি ইটভাটা বন্ধে অবশেষে অভিযান শুরু করেছে পরিবেশ অধিদপ্তর। সোমবার (১১ জানুয়ারী) দিনব্যাপী অভিযান চালিয়ে রামু উপজেলার তিনটি অবৈধ ইটভাটা বন্ধ করে দেওয়ার পাশাপাশি একটি ভাটাকে ৬ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। ইটভাটাগুলো হচ্ছে, জামাল হোসেনের মালিকানাধীন বিবিএম ব্রিকস, নুরুল আলমের এনআরবি ব্রিকস ও হামিদুল হকের মালিকানাধীন হক ব্রিকস। এ তিনটি ভাটা গুড়িয়ে দেওয়ার পাশাপাশি হক ব্রিকসকে ৬ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। অভিযানে নেতৃত্ব দিচ্ছেন পরিবেশ অধিদপ্তরের সিনিয়র সহকারী সচিব ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাদিকুর রহমান সবুজ।

বিকাল পৌনে পাঁচটার দিকেকক্সবাজার পরিবেশ অধিদপ্তের পরিদর্শক মো. মঈনুল হক জানান, এখনো অভিযান চলছে। এখন পর্যন্ত তিনটি ভাটা অভিযান চালানো হয়েছে। তিনি জানান,পরিবেশ ছাড়পত্র ও ইট পুড়ানোর ছাড়পত্র না থাকায় অবৈধ ইটভাটা ধ্বংসে দেশব্যাপী অভিযান চলছে। এর অংশ হিসেবে কক্সবাজারেও অভিযান শুরু হয়েছে। পর্যায়ক্রমে সকল অবৈধ ইটভাটার বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত থাকবে।

কক্সবাজারের পরিবেশ বিষয়ক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন এনভায়রনমেন্ট পিপল এর প্রধান নির্বাহী রাশেদুল মজিদ বলেন, কক্সবাজারে তিনভাগের দুইভাগ ইটভাটা অবৈধ। পরিবেশ ছাড়পত্র ছাড়া দীর্ঘদিন ধরে এসব ইটভাটা কার্যক্রম চালিয়ে আসছে। এসব ইটভাটা মারাত্মক ভাবে পরিবেশ দূষণ করছে। কিন্তু স্থানীয় প্রশাসন এসব ইটভাটা বন্ধে আন্তরিক ছিলেন না। অভিযানে স্থানীয় পরিবেশ অধিদপ্তর, র্যার, পুলিশ ও ফায়ার ব্রিগেড এর সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।