দারুণ জয়ে বছর শুরু রিয়ালের

ক্রীড়া ডেস্কঃ
রক্ষণ কী আক্রমণ-দলের যখন যেখানে প্রয়োজন, সামর্থ্যের শতভাগ দিয়ে একাদশে জায়গা পাকা করা লুকাস ভাসকেস আলো ছড়ালেন। সঙ্গে জ্বলে উঠলেন মার্কো আসেনসিও। দুজনে গোল করার পাশাপাশি একে অপরের গোলে রাখলেন অবদান। উজ্জীবিত সেল্তা ভিগোকে হারিয়ে নতুন বছরে দুর্দান্ত শুরু করল রিয়াল মাদ্রিদ।

আলফ্রেদো দি স্তেফানো স্টেডিয়ামে শনিবার রাতে লা লিগার ম্যাচটি ২-০ গোলে জিতেছে রিয়াল। ভাসকেসের গোলে চ্যাম্পিয়নরা এগিয়ে যাওয়ার পর ব্যবধান বাড়ান আসেনসিও।

লিগ টেবিলে আপাত শীর্ষে উঠল রিয়াল। ১৭ ম্যাচে ১১ জয় ও তিন ড্রয়ে তাদের পয়েন্ট ৩৬। তিন ম্যাচ কম খেলা আতলেতিকো মাদ্রিদ ৩৫ পয়েন্ট নিয়ে নেমে গেছে দুইয়ে।

সেল্তার আক্রমণাত্মক ফুটবলের সামনে সের্হিও রামোসের অনুপস্থিতি ভাবনার কারণ হতে পারতো। তবে অধিনায়কের শূন্যতা তেমন বুঝতে দিলেন না নাচো ফের্নোন্দেস। রক্ষণ জমাট রেখে দ্বিতীয়ার্ধে দাপুটে পারফরম্যান্সে জয়ে ফিরল তিন দিন আগে এলচের মাঠে পয়েন্ট হারানো রিয়াল।

গত ছয় রাউন্ডে অপরাজিত দুই দল; পাঁচটি করে জয় ও একটি করে ড্র। দারুণ ছন্দে থাকা দুই দলের লড়াই শুরুতেই রোমাঞ্চ ছড়ায়। প্রতিপক্ষের আক্রমণ রুখে ওঠা প্রতি-আক্রমণে গোল আদায় করে নেয় রিয়াল।

পঞ্চম মিনিটে স্বাগতিকদের রক্ষণ ভেঙে বিপজ্জনক সীমানায় ঢুকে পড়েন ইয়াগো আসপাস। আসরে সর্বোচ্চ গোলদাতার দারুণ শট আগুয়ান গোলরক্ষক থিবো কোর্তোয়ার ওপর দিয়ে জালে ঢুকতে যাচ্ছিল, শেষবেলায় ঠেকিয়ে দেন সের্হিও রামোসের অসুস্থতায় সুযোগ পাওয়া নাচো ফের্নান্দেস।

আর ওখান থেকে ওঠা আক্রমণে পরের মিনিটে এগিয়ে যায় শিরোপাধারীরা। বাঁ দিক থেকে আসেনসিওর দারুণ ক্রস খুঁজে পায় দূরের পোস্টে ভাসকেসকে। লাফিয়ে কোনাকুনি হেডে আসরে নিজের দ্বিতীয় গোলটি করেন স্প্যানিশ এই ফরোয়ার্ড।

গোল খেয়ে যেন আরও আক্রমণাত্মক হয়ে ওঠে নভেম্বরের শুরুতে দায়িত্ব নেওয়া এদুয়ার্দো কৌদেতের কোচিংয়ে পাল্টে যাওয়া সেল্তা। বল দখলের পাশাপাশি আক্রমণেও আধিপত্য ধরে রাখে গত ছয় ম্যাচে ১৪টি গোল করা দলটি। রিয়াল পাল্টা আক্রমণে উঠলেও তেমন সুবিধা করতে পারছিল না তারা। বিরতির আগে অবশ্য সফরকারীরাও পারেনি কোর্তোয়াকে তেমন কোনো পরীক্ষায় ফেলতে।

উল্টো ৪৩তম ব্যবধান দ্বিগুণ হতে পারতো। দানি কারভাহালের ডি-বক্সের বাইরে থেকে নেওয়া শট পোস্ট ঘেঁষে বাইরে গেলে বেঁচে যায় সেল্তা।

দ্বিতীয়ার্ধেও একই ঢঙে শুরু করে সেল্তা। তাদের আরেকটি আক্রমণ ঠেকিয়ে ৪৯তম মিনিটে পাল্টা-আক্রমণে প্রথম কর্নার পায় রিয়াল। এর চার মিনিট পরই ব্যবধান বাড়ায় তারা।

মাঝমাঠে প্রতিপক্ষের বল কেড়ে নিয়ে সামনে বাড়ান ছন্দে থাকা লুকা মদ্রিচ। আর সতীর্থের পা ঘুরে ডি-বক্সে বাঁ দিকে পাস দেন ভাসকেস এবং নিখুঁত শটে ঠিকানা খুঁজে নেন আসেনসিও।

গোছালো আক্রমণে ৬৩তম দারুণ একটি সুযোগ পেয়েছিলেন বেনজেমা। কিন্তু ফরাসি ফরোয়ার্ডের কোনাকুনি শট দূরের পোস্ট ঘেঁষে বেরিয়ে যায়।

পুরো ম্যাচে বল দখলে রিয়াল অনেকটা পিছিয়ে থাকলেও ২-০ গোলে এগিয়ে যাওয়ার পর তাদের তেমন ভুগতে দেখা যায়নি। ৮৯তম মিনিটে ব্যবধান বাড়তে পারতো আরও; তবে দারুণ পজিশনে থেকে উড়িয়ে মারেন বেনজেমা।

তিন মিনিট যোগ করা সময়ের শেষ মিনিটে ম্যাচে নিজেদের দ্বিতীয় নিশ্চিত সুযোগটি পায় ৫১ শতাংশ বল দখলে রাখা সেল্তা। কিন্তু কোর্তোয়া ঝাঁপিয়ে একটি ক্রস ঠেকানোর পর কাছ থেকে বায়েসার শট ব্লক করেন নাচো।

ঘরের মাঠে লিগে সেল্তার বিপক্ষে এই নিয়ে টানা ১৩ ম্যাচ অপরাজিত রইলো রিয়াল।

সব প্রতিযোগিতায় চলতি মৌসুমে টানা আট ম্যাচ ধরে অপরাজিত তারা; জয় সাতটি, একটি ড্র।

১৭ ম্যাচে ২৯ পয়েন্ট নিয়ে তিন নম্বরে রিয়াল সোসিয়েদাদ। সমান পয়েন্ট নিয়ে চার নম্বরে ভিয়ারিয়াল। দিনের আরেক ম্যাচে রিয়াল বেতিসের মাঠে ১-১ ড্র করা সেভিয়া ১৫ ম্যাচে ২৭ পয়েন্ট নিয়ে আছে পঞ্চম স্থানে।

২৫ পয়েন্ট নিয়ে ছয় নম্বরে ১৫ ম্যাচ খেলা বার্সেলোনা।

১৭ ম্যাচে ছয় জয় ও পাঁচ ড্রয়ে ২৩ পয়েন্ট নিয়ে আট নম্বরে আছে সেল্তা।

সূত্রঃ বিডিনিউজ