যৌন হয়রানি প্রতিরোধে গণপরিবহণ কর্মীদের অঙ্গীকার

সোয়েব সাঈদঃ
গণপরিবহণে যৌন হয়রানি প্রতিরোধে গণপরিবহণ কর্মীদের নিয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলায় পরিবহণ চালক সমিতির কার্যালয়ে বুধবার (২ ডিসেম্বর) সকালে এ সভার আয়োজন করে ইপসা পরিচালিত আস্থা প্রকল্প। সভায় জেন্ডার বৈষম্য দূরীকরনে গণপরিবহণে জেন্ডার সংবেদনশীল আচরণ উপস্থাপনের মাধ্যমে নারী ও কন্যাশিশুর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধে সক্রিয় ভূমিকা পালনের অঙ্গীকার করেন গণপরিবহন চালকরা।
‘নারী নির্যাতন প্রতিরোধ পক্ষ ২০২০’ উদযাপন উপলক্ষে এ সভার আয়োজন করা হয়। উল্লেখ্য আস্থা প্রকল্প নেদারল্যান্ডস এম্বাসির অর্থায়নে, ইউএনএফপিএ এবং আইন ও সালিশ কেন্দ্রের সহযোগিতায় কক্সবাজার জেলায় মাঠ পর্যায়ে কাজ করছে ইপসা।

‘জেন্ডার ভিত্তিক সহিংসতা প্রতিরোধে গণপরিবহণ চালকদের নিয়ে মতবিনিময় সভার প্রতিবেদন’ শীর্ষক এই আলোচনা সভার উদ্দেশ্য ছিলো গণপরিবহন চালকরা যে বিভিন্ন স্থান থেকে যাত্রী উঠানামা করে সে ক্ষেত্রে যেন নারী ও কিশোরীদের সাথে ভালভাবে আচরণ করে এবং সঠিক স্থানে বা নিরাপদ জায়গায় নামিয়ে দেয়। নারীকে হেয় ও তুচ্ছ করে উপস্থাপন না করেন, সহিংসতার শিকার সারভাইভার যখন গাড়িতে ওঠে তখন তাদের মাধ্যে অনেক আলোচনা হয়। সেই আলোচনা যাতে, সর্বোচ্চ গোপনীয়তা, সম্মান ও সংবেদনশীলতা বজায় রাখেন সে বিষয়ে সচেতন করে তোলা এবং একই সাথে আস্থা প্রকল্পের বিভিন্ন কার্যক্রম তুলে ধরে এর ভালো উদ্যোগগুলোকে গণপরিবহন চালকদের উপস্থাপন এর বিষয়ে সম্পৃক্ত করা।

সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ আহাম্মদ সনজুর মোরশেদ। সভা উদ্বোধন করেন। বিশেষ অতিথি ছিলেন পরিবহন চালক সমিতির উপদে মো. বেলাল উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক মাসুদ আমিন শাকিল। আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন পরিবহণ সমিতির প্রধান উপদেষ্টা ও উখিয়া উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মুজিবুল হক আজাদ।

আস্থা প্রকল্পের জেলা সমন্বয়ক জসিম উদ্দিন ’আর্ন্তজাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ পক্ষ ২০২০’- এর থীম সর্ম্পকে এবং এ উপলক্ষে আয়োজিত বিভিন্ন কর্মসূচী সর্ম্পকে আলোচনা করেন। সভা সঞ্চালনায় ছিলেন- উখিয়া আস্থা প্রকল্পের এসএমও মোঃ মনিরুল আলম।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে প্রধান অতিথি আহাম্মদ মনজুর মোরশেদ ওসি উখিয়া থানা বলেন, ”এ সমাজ আপনাদের, এ সমাজ সুন্দর করবেন আপনারা। আপনারা যেখানে আটকে যাবেন সেখানে আমরা আপনাদের সেবা প্রদান করব। নারী নির্যাতন বন্ধ করে তাদের এবং প্রত্যেকের জন্য একটা নিরাপদ জনপদ তৈরি করে একটা সুন্দর সমাজ প্রতিষ্ঠা করতে আপনাদেরই অগ্রগামী হতে হবে। আর থানায় নির্যাতিতা নারীর জন্য সেবা প্রদান করতে একটা নারী সেবা কেন্দ্র আছে। আপনারা সবাই-কে এ তথ্য জানিয়ে দিবেন।”

বিশেষ অতিথি মাসুদ আমিন শাকিল, সাধারণ সম্পাদক, উখিয়া সিএনজি সমিতি আগত চালকদের উদ্দেশ্যে বলেন “নারীর জন্য নিরাপদ সড়ক প্রদান করতে সবচেয়ে বড় ভুমিকা আপনারাই রাখতে পারবেন। তারা আমাদেরই মা, বোন, ভাতিজি। সুতরাং যদি আমরা দেখি কোথাও কোন নারীর নিরাপত্তার সংকট হচ্ছে অথবা যৌন হয়রানির শিকার হচ্ছে সবার আগে আপনাদেরই প্রতিবাদ জানাতে হবে। প্রয়োজনে আইনি সহায়তা নিতে বা হটলাইন নাম্বারে ফোন দিয়ে আপনারা সেই নারীকে সহায়তা করবেন। এাঁ আপনাদের দায়িত্ব। ”

একজন সিএনজি চালক, মোঃ আসলাম উদ্দিন বলেন ’আমার গাড়িতে যদি এমন কোন সমস্যা হয় আমি সাথে সাথে প্রতিবাদ করব। আর আজ যেহেতু জানলাম সাহায্য চাইলে পাওয়া যাবে সেহেতু, সিএনজি সমিতির বা আস্থার বা সরাসরি পুলিশে সহযোগিতা নিয়ে আমি সেই মেয়ের নিরাপত্তা নিশ্চিৎ করব।” এতে উপস্থিত সকল সিএনজি চালক স্বতস্ফুর্তভাবে অংশগ্রহণ করেন এবং নারী ও কন্যা শিশুর প্রতি সহিংসতা বিষয়ক যে কোন খবর পেলে দ্রুত ১০৯ বা ৯৯৯ কল দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেন।