সৌদি ওজারের শ্রমিকদের সমস্যা সমাধানে রিয়াদ দূতাবাস

রিয়াদ: সৌদি আরবের সৌদি ওজার কোম্পানিতে কর্মরত কয়েক’শ বাংলাদেশি দীর্ঘদিন বেতন-ভাতা না পেয়ে অভুক্ত অবস্থায় মানবেতর জীবন যাপন করছেন। এসব বাংলাদেশি শ্রমিকদের সমস্যা সমধানে কাজ করছে রিয়াদে বাংলাদেশ দূতাবাস।

সৌদি ওজার কোম্পানিতে ১৬০০ বাংলাদেশিসহ অন্য দেশের শ্রমিকরা কাজ করছেন। দীর্ঘদিন বেতন-ভাতা না পাওয়ার কারণে বিদেশী শ্রমিকদের অভুক্ত থাকার মত সমস্যা দেখা দিয়েছে।

ভুক্তভোগী শ্রমিকদের অভিযোগ, কোম্পানি অনেকদিন থেকে বেতন-ভাতা দেয় না। আর ইনকাম না থাকার কারণে বাইরে যাওয়া সম্ভব হচ্ছেনা। এ অবস্থায় দূতাবাস তাদের সমস্যার দ্রুত সমাধান না করলে না খেয়ে মরতে হবে।

একই সমস্যায় থাকা ১০ হাজার ভারতীয় নাগরিককে খাবার সরবরাহ করছে জেদ্দায় ভারতীয় কনস্যুলেট। সরকারের নির্দেশে রিয়াদের ভারতীয় দূতাবাস ও জেদ্দার ভারতীয় মিশনের পক্ষ থেকে শ্রমিকদের শিবিরে গিয়ে খাওয়ানোর ব্যবস্থা করা হচ্ছে। জেদ্দা থেকে কনস্যুলেটের কর্মকর্তারা আল-শুমাইসি নামে শ্রমিকদের সবচেয়ে বড় একটি ক্যাম্পে গিয়ে খাবার দিচ্ছেন।

আন্তর্জাতিক বাজারে তেলের দাম ক্রমাগত পড়তে থাকায় সৌদিতে বহু কোম্পানির কাজ বন্ধ হতে শুরু করেছে গত বছর থেকেই। সবচেয়ে শোচনীয় অবস্থা নির্মাণ সংস্থাগুলোর। অনেক প্রতিষ্ঠানের শ্রমিকদের হঠাৎ করেই ছাঁটাই করা হয়েছে। অনেকে মাসের পর মাস বেতন পাচ্ছেন না। শ্রমিকদের জন্য নির্মিত ক্যাম্পগুলোতে তাদের দিন কাটছে প্রায় অভুক্ত অবস্থায়।

সৌদি কর্তৃপক্ষ বলছে, এশিয়ার বিভিন্ন দেশ থেকে আসা শ্রমিক, যারা সে দেশে বেকার রয়েছে, তারা যেন অন্য চাকরিতে যোগ দিতে পারে বা দেশ ত্যাগ করতে পারে সে লক্ষ্যে বিধি নিষেধ শিথিল করা হবে।