করোনাভাইরাস যেভাবে মস্তিষ্কের ক্ষতি করে

লাইফস্টাইল ডেস্কঃ
পুরো পৃথিবীর চিত্রই বদলে দিয়েছে করোনাভাইরাস। কীভাবে ভাইরাসটি পুরো শরীরে প্রভাব ফেলেছে সে সম্পর্কে আরও জানতে বিজ্ঞানী এবং চিকিৎসা বিশেষজ্ঞরা দিনরাত চেষ্টা করছেন। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হয়েছিল ভাইরাসটি কেবল দেহের শ্বাসযন্ত্রের ক্ষেত্রে প্রভাব ফেলবে, তবে বেশ কয়েকটি গবেষণায় উল্লেখ করা হয়েছে যে, করোনভাইরাস মস্তিষ্কের ক্ষতির কারণ হতে পারে। এমনটাই প্রকাশ করেছে টাইমস অব ইন্ডিয়া।

করোনাভাইরাসের নিউরোলজিকাল লক্ষণ
করোনাভাইরাসে ইতোমধ্যে বিশ্বজুড়ে ১২ মিলিয়নেরও বেশি লোক সংক্রমিত হয়েছে। ভাইরাসটি কীভাবে শরীরে ছড়িয়ে পড়ছে তা লক্ষ্য করছেন গবেষকরা। তারা দেখেছেন যে, যারা সুস্থ হয়েছেন তাদের মধ্যে এক বিপর্যয়কর প্রভাব ফেলে এই ভাইরাস। করোনাভাইরাস কেন্দ্রীয় স্নায়ুতন্ত্রে প্রভাব ফেলে নিউরোজিকাল লক্ষণগুলো বাড়িয়ে তুলেছে এমন প্রমাণ মিলেছে।

করোনাভাইরাস মস্তিষ্ককে প্রভাবিত করার প্রধান উপায়
যারা করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে হালকা অসুস্থতা থেকে সেরে উঠেছেন তারা পরে মনোযোগ দিতে না পারা, বিভ্রান্ত চিন্তাভাবনা এবং স্মৃতির সমস্যার সাথে সমস্যাও উল্লেখ করেছেন। এখনও পর্যন্ত এটা স্পষ্ট যে, এই ভাইরাস মস্তিস্কে বিভ্রান্তি, চেতনা হ্রাস, স্ট্রোক, খিঁচুনি, গন্ধ এবং স্বাদ হ্রাস (অ্যানোসিমিয়া) ইত্যাদি সমস্যা সৃষ্টি করতে পারে।

যে তিন প্রধান উপায়ে করোনাভাইরাস মস্তিষ্ক এবং কেন্দ্রীয় স্নায়ুতন্ত্রকে প্রভাবিত করে সে সম্পর্কে জেনে নিন-

বিভ্রান্তি এবং বিচ্ছিন্নতা
এমন খবর অহরহ মিলছে যে, এই রোগের সাথে লড়াই করা প্রচুর লোক প্রলাপ এবং বিভ্রান্তির সম্মুখীন হয়েছে। বিভ্রান্তিকর চিন্তাভাবনা এবং বিশৃঙ্খলা তাদের দীর্ঘস্থায়ী প্রভাবের জন্য এখনও বিস্তারিত গবেষণা করা হয়নি। মস্তিষ্কে করোনাভাইরাসের প্রভাব সম্পর্কিত বেশ কয়েকটি ধারণা রয়েছে। এর মধ্যে একটি হলো, এটি জ্ঞান হ্রাসসহ ডিমেনশিয়ার মতো প্রাক-বিদ্যমান স্নায়বিক অবস্থার অবনতি ঘটায়।

রক্ত জমাট বাঁধার কারণে স্ট্রোক
করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের ওপরে করা সাম্প্রতিক গবেষণায়ে রক্ত জমাট বাঁধার এক অস্বাভাবিক স্তরের উপর আলোকপাত করা হয়েছে, যা মূলত স্ট্রোকের কারণ। মস্তিষ্কে রক্ত সরবরাহকারী ধমনীতে যখন রক্ত জমাট বাঁধে তখন এটি মস্তিষ্কে অক্সিজেন এবং রক্ত সরবরাহ বন্ধ করে দেয় এবং স্ট্রোকের দিকে পরিচালিত করে। প্রকৃতপক্ষে, গুরুতর অসুস্থতায় আক্রান্ত অনেক করোনা রোগীর ক্ষেত্রে রক্ত পাতলা করার ওষুধ দেয়ার পরেও রক্ত জমাট বাঁধে। এই বিষয়গুলো প্রমাণ করে যে, করোনাভাইরাস রোগের কয়েকটি বড় জটিলতা রক্ত জমাট বাঁধার কারণে হতে পারে।

মস্তিষ্কের প্রদাহ (এনসেফালাইটিস)
দ্য ল্যানসেট সাইকিয়াট্রিতে প্রকাশিত একটি সমীক্ষা অনুসারে, যুক্তরাজ্যের হাসপাতালগুলোতে ভর্তি হওয়া ১২৫ করোনাভাইরাস রোগীর প্রায় অর্ধেকই মস্তিষ্কের প্রদাহে ভুগছিলেন, আর বাকি অর্ধেক রক্ত জমাট বাঁধার কারণে স্ট্রোক করেছিলেন। গবেষকদের মতে, করোনাভাইরাস শরীরে আক্রমণ করার একটি উপায় হলো, এটি মস্তিষ্কের প্রদাহ এবং ফোলাভাব সৃষ্টি করে। ব্রেইন জার্নালে প্রকাশিত আরেকটি গবেষণায় করোনভাইরাসে কারণে সৃষ্ট নিউরোজিক্যাল লক্ষণ তুলে ধরা হয়েছে। এই জটিলতায় মস্তিস্কের প্রদাহ, স্নায়ুর ক্ষতি, স্ট্রোক এবং প্রলাপ অন্তর্ভুক্ত।

সূত্রঃ জাগোনিউজ