শনিবার থেকে স্টেডিয়ামেই অনুশীলন করতে পারবেন ক্রিকেটাররা

ক্রীড়া ডেস্কঃ
রাজধানী ঢাকাসহ ক্রিকেটাররা যাতে সারা দেশের সব প্রতিষ্ঠিত ভেন্যুতে নিজ নিজ উদ্যোগে অনুশীলন করতে পারেন, সে লক্ষ্যে দেশের ক্রিকেটের আটটি আন্তর্জাতিক ভেন্যু সম্পূর্ণ প্রস্তুত করে ফেলা হয়েছে আগেই।

বিসিবির ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির চেয়ারম্যান আকরাম খান আগেভাগেই জানিয়ে রেখেছিলেন- ঢাকার শেরে বাংলা, ফতুল্লার খান সাহেব ওসমান আলী, চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী, কক্সবাজারের শেখ কামাল, খুলনার শেখ আবু নাসের, সিলেট বিভাগীয় স্টেডিয়াম, রাজশাহী কামরুজ্জামান স্টেডিয়াম তৈরি রাখা হয়েছে ক্রিকেটারদের জন্য। তারা ইচ্ছে করলেই অনুশীলন করতে পারবেন।

অবশ্য ঢাকার বাইরে থাকা ক্রিকেটারদের অনেকেই ব্যক্তিগত পর্যায়ে অনুশীলন শুরু করেছেন। তবে সেটা কোন প্রতিষ্ঠিত ক্রিকেট ভেন্যুতে নয়, ঢাকার বাইরের জাতীয় ক্রিকেটারদের প্র্যাকটিস চলছে বাড়ির কাছের মাঠ বা খোলা জায়গায়।

এদিকে ভেতরের খবর, এবার সেই সব ভেন্যু ক্রিকেটারদের অনুশীলনের জন্য খুলে দেয়া হচ্ছে। বিসিবির প্রধান চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী জানিয়েছেন, আগামী ১৮ জুলাই শনিবার থেকে ঢাকার শেরে বাংলা স্টেডিয়ামসহ সব ভেন্যুতে ব্যক্তিগত পর্যায়ের অনুশীলন করার জন্য খুলে দেয়া হবে। ক্রিকেটাররা ইচ্ছে করলে সে সব ভেন্যুতে নিজ নিজ উদোগে অনুশীলন করতে পারবেন।

আজ মঙ্গলবার পড়ন্ত বিকেলে জাগো নিউজের সাথে আলাপে ডাঃ দেবাশীষ চৌধুরী বলেন, ‘আমরা ব্যক্তিগত পর্যায়ের অনুশীলন করার সুযোগ করে দিতে চাচ্ছি এবং আগামী শনিবার পর্যন্ত রাজধানী ঢাকাসহ বিভিন্ন ভেন্যু খুলে দেয়া হবে।’

কিন্তু সবচেয়ে মজার খবর হলো, বিসিবির প্রধান চিকিৎসক ক্রিকেটারদের অনুশীলনের জন্য শেরে বাংলাসহ দেশের সব প্রতিষ্ঠিত ভেন্যুতে ক্রিকেটারদের ব্যক্তিগত পর্যায়ে অনুশীলন করার খবর দিলেও যার সবার আগে এই খবর জানার কথা, সেই আকরাম খান জানালেন- তিনি কিছুই জানেন না।

জাতীয় দল পরিচালনা, পরিচর্যা ও তত্ত্বাবধানর দায়িত্বে থাকা ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির চেয়ারম্যান আকরাম খান মঙ্গলবার জাগো নিউজকে বলেন, ‘আমি এবং আমরা (বিসিবি) আগেও বলেছি, এখনো বলছি- ক্রিকেটাররা যদি কেউ ব্যক্তিগত পর্যায়ে অনুশীলন করতে চায় তাহলে করতে পারে। তবে করোনার এখনও যে অবস্থা, তাতে ক্রিকেটারদের মাঠে গিয়ে অনুশীলন করা নিরাপদ নয়। তাই আমরা বোর্ড থেকে এখন ক্রিকেটারদের নিরুৎসাহিত করছি। অবস্থা ভালো হলেই কেবল জাতীয় দলের আনুষ্ঠানিক অনুশীলন শুরু হবে।’

আকরাম খান যোগ করেন, ‘এখন মাঠে গিয়ে ক্রিকেটাররা প্র্যাকটিস করবে কি করবে না, সেটা আসলে তাদের ওপর ছেড়ে দেয়াই ভালো। আর শনিবার থেকে যে অনুশীলন শুরুর কথা বলা হয়েছে, আমি তা জানি না। আমি এটুই শুধু জানি, ভেন্যুগুলো অনুশীলনের জন্য তৈরি। কিন্তু বোর্ডের উদ্যোগে আপাতত কোনো অনুশীলন শুরু হচ্ছে না। তারপরও কেউ একান্তই যদি মাঠে গিয়ে অনুশীলন করতে চায়, করতে পারে। তবে আমরা বোর্ড থেকে উৎসাহিত করবো না।’

‘আর স্কিল ট্রেনিংও এখন হবে না। নিজ নিজ উদ্যোগে ফিজিক্যাল ট্রেনিং, জিমওয়ার্ক, রানিং আর হালকা নক করতে পারবে হয়তো। এর বাইরে সত্যিকার প্র্যাকটিস বলতে যা বোঝায়, তা করোনার ভয়াবহতা না কমলে কিছুতেই শুরু হবে না’-বলে শেষ করেন আকরাম।

সূত্রঃ জাগোনিউজ