সাঈদী মুক্তির ‘পরিকল্পনাকারীকে’ গ্রেপ্তারের দাবি র‌্যাবের

অনলাইন ডেস্কঃ
চট্টগ্রামে এক ব্যক্তিকে আহত অবস্থায় গ্রেপ্তার করে র‌্যাব জানিয়েছে, এই ব্যক্তি যুদ্ধাপরাধে আমৃত্যু কারাদণ্ডপ্রাপ্ত জামায়াত নেতা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর মুক্তির জন্য দেশে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি তৈরির চেষ্টা করছিলেন।

মঙ্গলবার ভোরে নগরীর পাঁচলাইশ এলাকার একটি বাসায় অভিযান চালিয়ে রকি বড়ুয়া (৪০) নামে ওই যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়। একইসাথে তার ছয় সহযোগীকেও গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

রকি পালাবার চেষ্টা করে আহত হন জানিয়ে র‌্যাব-৭ এর অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মশিউর রহমান জুয়েল বলেন, “গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ভোর রাতে পাঁচলাইশ থানাধীন মোহাম্মদপুর এলাকার বাসায় অভিযান চালালে সে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে তিন তলার বাসার কার্নিশ থেকে লাফ দেয়। এসময় সে দুই পায়ে আঘাতপ্রাপ্ত হয়।”

রকির বাসা থেকে একটি বিদেশি পিস্তল, ম্যাগাজিন ভর্তি গুলি ও বিদেশি মদ উদ্ধারের কথাও জানিয়েছে র‌্যাব।

পরে তার দেওয়া তথ্যে নগরীর লালখান বাজারে তার কেনা ফ্ল্যাটে অভিযান চালিয়ে এক নারী ও অন্যদের গ্রেপ্তার করা হয়।

র‌্যাব কর্মকর্তা মশিউর বলেন, “যুদ্ধাপরাধে দণ্ডপ্রাপ্ত সাঈদীকে মুক্ত করতে বিভিন্ন অপচেষ্টায় সে (রকি) লিপ্ত আছে, এমন অভিযোগ আমাদের কাছে ছিল। বিভিন্ন উদ্দেশ্য নিয়ে সে সাঈদীপুত্র মাসুদ সাঈদীর সাথেও বৈঠক করে বলে আমরা জেনেছি।”

আর গ্রেপ্তার রকিকে প্রতারক উল্লেখ করে এই র‌্যাব কর্মকর্তা বলেন, “জাতীয় ও আন্তর্জাতিকভাবে পরিচিত ব্যক্তির নাম ভাঙ্গিয়ে প্রতারণা করে আসছে সে দীর্ঘদিন ধরে।”

মাসুদ সাঈদী এবং ধর্মীয় বক্তা তারেক মনোয়ারের সঙ্গে রকির বৈঠকের একটি ছবি সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ হলে তিনি আলোচনায় আসেন।

র‌্যাব জানায়, গত এক এপ্রিল লোহাগাড়ার চরম্বা ইউনিয়নের রকি বড়ুয়ার বাড়ির এলাকায় মাসুদ সাঈদীর সঙ্গে তার বৈঠক হয়।

রকির বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবিরোধী, মাদক ও অস্ত্র আইনে পৃথক তিনটি মামলা করেছে র‌্যাব।

সূত্রঃ বিডিনিউজ