রামুতে সাত সন্তানের জননীকে ধর্ষণের অভিযোগে যুবক গ্রেপ্তার

নিজস্ব প্রতিবেদক :
কক্সবাজারের রামুর গর্জনিয়ায় ৩৮ বছর বয়সি সাত সন্তানের জননীকে ধর্ষণের অভিযোগে সাইফুল ইসলাম (২৮) নামের এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

রোববার দুপুরে তাঁকে আদালতের মাধ্যমে কক্সবাজার জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে। সাইফুল গর্জনিয়া ইউনিয়নের পশ্চিমবোমাংখিল গ্রামের রশিদ আহমদের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়- গত ১৪ এপ্রিল সন্ধ্যায় গর্জনিয়ার বটতলী ষ্টেশন থেকে সিএনজি অটোরিক্সায় ওই নারীকে রাজঘাট পাহাড়ে নিয়ে যাওয়া হয়। সাড়ে সাতটা থেকে সাড়ে আটটার মধ্যে সাইফুল ইসলাম ও আব্বাস উদ্দিন নামের দুই যুবক নারীটিকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করেন। পরে মোটরসাইকেলে করে তাঁকে অন্যত্র পাঠানো হয়।

ধর্ষণের শিকার নারীটি পুলিশকে জানান- ঘটনাটি স্থানীয়ভাবে ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করেছেন সাইফুলের চাচা নুরুল আলম মেম্বার। তিনদিন ধরে তাঁকে এক প্রকার অবরুদ্ধ করে রাখা হয়েছিলো। পরে সুযোগ পেয়েই থানায় ছুটে যান এবং অপরাধীদের বিরুদ্ধে গত ১৭ এপ্রিল সংশ্লিষ্ট আইনে নিজেই বাদি হয়ে গণধর্ষণের মামলা দায়ের করেন। থানার ওসি মো. আবুল খায়ের আন্তরিকভাবে সার্বিক সহযোগিতা করেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও গর্জনিয়া পুলিশ ফাঁড়ির দায়িত্বরত পরিদর্শক মো. আনিছুর রহমান বলেন- ঘটনাটি খুবই নিন্দনীয়। ঘটনার এক নাম্বার আসামি সাইফুল ইসলামকে শনিবার রাতে গ্রেপ্তার করে রোববার সকালে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। মামলার অন্য আসামি আব্বাস উদ্দিনকে গ্রেপ্তারের জন্য জোর তৎপরতা পুলিশের পক্ষ থেকে অব্যাহত রয়েছে।