মালয়েশিয়ায় সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত রামুর মাওলানা খোরশেদ আলমের জানাযায় শোকার্ত জনতার ঢল

সোয়েব সাঈদ:
মালয়েশিয়ায় সড়ক দূর্ঘটনায় মৃত্যুবরণকারি রামুর ঐতিহ্যবাহি কেন্দ্রিয় জামেয়াতুল উলুম মাদরাসার সিনিয়র শিক্ষক বিশিষ্ট আলেমেদ্বীন মাওলানা খোরশেদ আলমের নামাজে জানাযা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বুধবার ২৭ জুলাই বাদে আসর রামু খিজারী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে অনুষ্ঠিত নামাজে জানাযায় শরীক হন হাজার হাজার শোকার্ত জনতা। এতে ইমামতি করেন, জেলার বরণ্যে আলেমেদ্বীন অফিসেরচর এমদাদিয়া কাছেমুল উলুম মাদরাসার মুহতামিম মাওলানা মূফতি মোর্শিদুল আলম চৌধুরী।

ইসলামিক ফাউন্ডেশন রামুর দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন খালেদের সঞ্চালনায় জানাযাপূর্ব সংক্ষিপ্ত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, রামু উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রিয়াজ উল আলম, রামু উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও রামু উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি সোহেল সরওয়ার কাজল, রামু বাইপাস কেন্দ্রিয় জামে মসজিদের খতিব মাওলানা হাফেজ আবদুল হক, রামু জামেয়াতুল উলুম মাদরাসার মুহতামিম মাওলানা হাফেজ শামসুল হক, রাজারকুল আজিজুল উলুম মাদরাসার পরিচালক মাওলানা মোহছেন শরীফ, রামু চৌমুহনী বায়তুন নুর জামে মসজিদের খতিব মাওলানা হেফাজতুর রহমান, রামু খিজারী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক মাওলানা বখতেয়ার আহমদ।

উল্লেখ্য, মাওলানা খোরশেদ আলম (৪৬) গত ১৭ জুলাই মালয়েশিয়ার কুলান নগরীতে মর্মান্তিক সড়ক দূর্ঘটনায় গুরুতর আহত হন। সেখান একটি হাসপাতালের আইসিইউ’তে চিকিৎসাধিন থাকাকালে গত ২২ জুলাই (শুক্রবার) বাংলাদেশ সময় ভোর ৫ টা ২০ মিনিটে তিনি ইন্তেকাল করেছেন। তিনি রমজান মাসে পর্যটক ভিসা নিয়ে মালয়েশিয়া ভ্রমনে গিয়েছিলেন।

মাওলানা খোরশেদ আলম রামুর ঐতিহ্যবাহি কেন্দ্রিয় জামেয়াতুল উলুম মাদরাসার সিনিয়র শিক্ষক এবং রামু উপজেলার ফতেখাঁরকুল ইউনিয়নের পশ্চিম মেরংলোয়া গ্রামের মরহুম রশিদ আহমদের ছেলে। মৃত্যুকালে তিনি ২ স্ত্রী, ২ ছেলে, ৩ মেয়ে সহ অসংখ্য আত্মীয়-স্বজন, গুনগ্রাহি রেখে গেছেন।

এদিকে বিশাল জানাযাপূর্ব সমাবেশে বক্তারা বলেন, মাওলানা খোরশেদ আলম ছিলেন দ্বীনের পথের একজন নিবেদিতপ্রাণ ব্যক্তি। তিনি ছিলেন, সজ্জ্বন ও মেধাবি আলেমেদ্বীন। তাকে হারিয়ে রামুর দ্বীনি শিক্ষাঙ্গনে যে শূণ্যতা সৃষ্টি হয়েছে তা পূরণ হবার নয়। তাঁর ভালো কাজ বিনিময়ে মহান আল্লাহপাক তাকে বেহেশতের সর্বোচ্চ স্থান দান করবেন।

রামু জামেয়াতুল উলুম মাদরাসার মুহতামিম মাওলানা হাফেজ শামসুল হক জানিয়েছেন, নিবেদিতপ্রাণ এ শিক্ষকের মৃত্যুতে মাদরাসার শিক্ষক-শিক্ষার্থীসহ পুরো এলাকাবাসীর মাঝে শোকাবহ পরিবেশ বিরাজ করছে। তিনি মহান আল্লাহর দরবারে মরহুমের আত্মার মাগফেরাত কামনা করেছেন।