রোহিঙ্গা ও স্থানীয়দের জন্য বিশ্বব্যাংকের ৩ হাজার কোটি টাকা অনুদান

অনলাইন ডেস্কঃ
বাংলাদেশের কক্সবাজারে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গা ও সেখানকার স্থানীয় জনগণের জন্য তিন প্রকল্পের আওতায় ২ হাজার ৯৭৫ কোটি টাকা (৩৫০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার) অনুদান অনুমোদন দিয়েছে বিশ্বব্যাংক।

মঙ্গলবার (৩১ মার্চ) যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটনে অবস্থিত বিশ্ব ব্যাংকের সদরদফতরে এই অনুদান অনুমোদন করা হয়েছে বলে বুধবার (১ এপ্রিল) জানিয়েছে ব্যাংকটির ঢাকা কার্যালয়।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ ও ভুটানের কান্ট্রি ডিরেক্টর মার্সি টেমবন বলেন, ‘প্রায় ১ দশমিক ১ মিলিয়ন রোহিঙ্গাকে আশ্রয় দিয়ে বাংলাদেশ মহত্বের পরিচয় দিয়েছে। কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলায় স্থানীয় জনগণের প্রায় তিনগুণ রোহিঙ্গা রয়েছে। স্বাভাবিকভাবেই এতে বিদ্যমান অবকাঠামো, সামাজিক সেবা সরবরাহ, স্বাস্থ্য ও প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের ঝুঁকি তৈরি হয়েছে। এই অর্থ রোহিঙ্গা সম্প্রদায় ও স্থানীয়দের ক্ষতি কমিয়ে আনতে সচেষ্ট হবে।’

বিশ্ব ব্যাংক জানায়, ‘হেলথ ও জেন্ডার সাপোর্ট প্রজেক্ট ফর কক্সবাজার জেলা’ প্রকল্পের আওতায় ১৫০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার অনুদান দেয়া হয়েছে। এতে করে রোহিঙ্গা সম্প্রদায়ের স্বাস্থ্য, পুষ্টি ও পরিবার পরিকল্পনা সেবার পাশাপাশি সহিংসতা রোধে কাজ করবে।

‘দ্য ইমার্জেন্সি মাল্টি সেক্টর রোহিঙ্গা ক্রাইসিস রেসপন্স’ প্রকল্পের আওতায় ১০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার অনুমোদন দেয়া হয়েছে। এর আওতায় রোহিঙ্গা ও স্থানীয়দের জন্য জ্বালানি, পানি, পয়ঃনিষ্কাশন ও বিপর্যয়-সহনীয় অবকাঠামো নির্মাণ করা হবে। আর ‘সেফটি নেট সিস্টেমস ফর দ্য পুওরেস্ট’ প্রকল্পের আওতায় ১০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ঋণ প্রদান করা হয়েছে। এর আওতায় রোহিঙ্গা ও স্থানীয়দের কর্মসংস্থান, সামাজিক নিরাপত্তা সৃষ্টিতে করা হবে। ৪০ হাজার স্থানীয় পরিবার ও ৮৫ হাজার রোহিঙ্গা পরিবার এর সুবিধাভোগ করবে।

সূত্রঃ জাগোনিউজ