পেকুয়ায় নির্মাণ শ্রমিককে কুপিয়ে আহত

ইমরান হোসাইন:
পেকুয়ায় নির্মাণ শ্রমিককে কুপিয়ে আহত করেছে রাজাখালী এরশাদ আলী ওয়াকফ এষ্টেটের পাহারাদার মো: পারভেজ হায়দার। তবে, এব্যাপারে পরস্পর বিরোধী বক্তব্য পাওয়া গেছে। মাছ চুরির ঘটনা ভিন্ন খাতে প্রভাবিত করতে হামলার ভিত্তিহীন অভিযোগ করছে বলে দাবি করছেন মো: পারভেজ।

স্থানীয়রা জানায়, গত সোমবার রাত ৮টার দিকে পেকুয়া উপজেলার রাজাখালী ইউনিয়নে ওয়াকফ এষ্টেটের কাচারির অদূরে জলাভূমিতে মাছ ধরার সময় এ ঘটনা ঘটে। আহত ব্যক্তির নাম শাহজাহান(৩৪)। পেশায় তিনি একজন নির্মাণ শ্রমিক।

তিনি কক্সবাজার শহরের বৌদ্ধ মন্দির সড়কের বাসিন্দা হলেও বর্তমানে রাজাখালী ইউনিয়নের আমিলা পাড়ার নাছির উদ্দীনের মেয়ে রিমা আক্তারকে বিয়ে করে প্রায় বছর যাবত শাশুর বাড়িতে বসবাস করে আসছেন।

আহত শাহজাহানের বরাত দিয়ে তার শ্যালক ছরওয়ার বলেন, আমার বোন জামাই শাহজাহান সন্ধ্যার পরে বাজার থেকে বাড়ি ফেরার পথিমধ্যে আমার সাথে দেখা হয়। তখন আমি মাছ ধরছিলাম একটি অনাবাধি জলাভূমিতে। তিনি আমাকে মাছ ধরার সুবিধার্থে আলো দেখাচ্ছিলেন রাস্তায় দাড়িয়ে। এর কিছুক্ষণ পর পিছন দিক থেকে এসে শাহজাহানকে ধারালো লম্বা দা(কিরিচ) দিয়ে কোপ দিয়ে পালিয়ে যায় ওয়াকফ এষ্টেটের পাহারাদার মো: পারভেজ।

মো: পারভেজ বলেন, ওইদিন রাতে শাহজাহানের নেতৃত্বে একদল চোর ওয়াকফ এষ্টেটের পুকুরে বিষ দিয়ে মাছ লুঠের চেষ্টা করে। তাই, আমি তাদের ধাওয়া দিয়েছি মাত্র। তবে, শাহজাহানকে কোপানোর কথা তিনি অস্বীকার করেন।

রাজাখালী এরশাদ আলী ওয়াকফ এষ্টেটের মতোয়াল্লী ও পেকুয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মারুফুর রশীদ খাঁন বলেন, ঘটনার খবর আমি শুনেছি। এ ঘটনায় দোষীদের বিরুদ্ধে আইনগতভাবে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।