করোনার কারণে বেতন কাটা হচ্ছে মেসিদের

অনলাইন ডেস্কঃ
পারিশ্রমিক কেটে নেয়া নিয়ে বার্সেলোনার খেলোয়াড়দের সঙ্গে একদিন আগে তুমুল তর্ক-বিতর্ক হয়ে গিয়েছিল বার্সা কর্তৃপক্ষের। তবে একদিন বিরতি দিয়ে ঠিকই মেসিদের পারিশ্রমিক কর্তনের ঘোষণা দিল বার্সেলোনা কর্তৃপক্ষ।

করোনার কারণে আগেই স্থগিত ঘোষণা করা হয়েছিল লা লিগাসহ স্পেনের সব ধরনের পেশাদার ফুটবল। পরে পরিস্থিতি ক্রমেই খারাপ হতে থাকলে অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হয় লা লিগা। উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগও অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত।

ইতালির পর বিশ্বে এখন করোনার সবচেয়ে মারাত্মক আঘাত বিরাজমান স্পেনের ওপর। দেশটিতে ইতিমধ্যেই মৃত্যু ৫ হাজার ছুঁইছুঁই। এমন পরিস্থিতিতে আদৌ ফুটবল আবার শুরু করা যাবে কি না, গেলেও সেটা কবে- তার কোনো নিশ্চয়তা নেই।

সুতরাং, লা লিগার ক্লাবগুলোও পড়ে গেলো মহা-বিপাকে। খেলা বন্ধ হয়ে যাওয়ার কারণে ক্লাবগুলোর আয়ের পথও বন্ধ। এ অবস্থায়, বসিয়ে বসিয়ে খেলোয়াড়দের বিশাল অংকের পারিশ্রমিক প্রদান করাও সম্ভব নয় ক্লাবগুলোর পক্ষে।

খোদ বার্সেলোনা ক্লাব কর্তৃপক্ষই পড়ে গেছে বড় আর্থিক সংকটে। এই সংকট মোকাবেলায তারা বাধ্য হলো মেসিদের পারিশ্রমিক কর্তন করতে।

স্প্যানিশ লা লিগা এবং উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের মৌসুম যদি শেষ না হয়, খেলা যদি আর মাঠে না গড়ায়, তাহলে সম্প্রচার স্বত্ত্ব, প্রাইজমানি ও গেট মানি বাবদ কয়েক মিলিয়ন ইউরো ক্ষতির মুখোমুখি দাঁড়িয়ে বার্সা। এরই মধ্যে তারা ম্যাচ ডে রাজস্ব আয় থেকে বঞ্চিত হতে শুরু করেছে। বার্সার ক্লাব মিউজিয়াম (জাদুঘর) থেকেও ভালো আয় হতো। প্রায় হাজার খানেক দর্শক প্রতিদিন জাদুঘর পরিদর্শণ করতে আসতো। এখন এই খাতও পুরোপুরি বন্ধ।

বুধবার প্রথম খবর প্রকাশ হয়, অন্তত ৭০ ভাগ পর্যন্ত পারিশ্র্রমিক কেটে নেয়ার প্রস্তাব দিয়েছে বার্সার বোর্ড অব ডিরেক্টরস। কিন্তু খেলোয়াড়রা এটা কোনোভাবেই মেনে নিতে রাজি নন। তারা এ নিয়ে প্রতিবাদ করে। যদিও সভাপতি হোসে মারিয়া বার্তেম্যু ঘোষণা দেন, এ নিয়ে খেলোয়াড়দের সঙ্গে কথা বলবেন এবং তাদেরকে বোঝাতে সক্ষম হবেন।

তবে নতুন করে বার্সেলোনা জানিয়েছে, তারা স্পেনের বিদ্যমান লেবার আইন অনুসরণ করবে। সেই আইনে যেভাবে অনুমোদন দেয়, সেভাবেই আপাতত খেলোয়াড়দের পারিশ্রমিক কর্তন করা হবে বলে জানিয়েছে বার্সেলোনা থেকে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে।

সূত্রঃ জাগোনিউজ