মাত্র দশদিন!

নঈম আল ইস্পাহান:
সরকার নিয়ম জারি করেছে কোন ছাত্র-ছাত্রী ক্লাসে দশ দিনের বেশি অনুপস্থিত থাকতে পারবেনা।এ বিষয়ে বিভিন্ন ছাত্র-ছাত্রীর মতামত তুলে ধরা হল-

নিয়মিত উপস্থিত ছাত্র-ছাত্রীদের মতামত:-আগে ক্লাসে কম ছাত্র-ছাত্রী উপস্থিত থাকত।তাই দেরিতে গেলেও সিট কাঙ্কিত পাওয়া যেত।আর এখন সবাই যদি এক সাথে ক্লাস করে তাহলে অনেক ভোরবেলা সিট ধরার জন্য ক্লাসে হাজির হতে হবে!

পার্টটাইম জবকারীদের মতামত:- আগে সারা মাস চাকরি করে একদিন ক্লাস করতে হত।আর এখন দশদিনের বেশি অনুপস্থিত থাকা যাবেনা।তার মানে নিয়মত ক্লাস করার জন্য চাকরিজীবন থেকে অবসর নিতে হবে!

অনিয়মিতদের মতামত: এত ক্লাস করতে ভাল লাগে?আমরা কি এখনো বাচ্ছা আছি?সারারাত ফেসবুকিং করে সকাল সকাল ঘুম থেকে উঠে প্রতিদিন ক্লাস করতে হবে?ও,নোহ!তবে ক্লাস না করেও উপায় নেই।জঙ্গির খাতায় কে নাম লেখাবে!

দূর্বল ছাত্র-ছাত্রীর মতামত: ক্লাস করতে গেলেই ম্যাথের ম্যাডামের নির্যাতন অসহ্য।আর এখন নিয়মিত ক্লাস করা মানে বুড়ো বয়সে ম্যাডামের পড়া না শিখে নির্যাতনের স্বীকার হওয়া!নির্যাতন থেকে বাঁচতে পড়ালেখার বিকল্প নেই।

কিপ্টাদের মতামত: প্রতিদিন ক্লাস করতে হবে?ক্লাস করতে যাব,ভাল কথা।কিন্তু,গাড়ি ভাঁড়া কে দিবে,শুনি?এমনিতে সপ্তাহে একদিনের গাড়ি ভাঁড়া দিতে কলিজার পানি শুকায়া আসে।প্রতিদিন টাকা খরচ করে ক্লাস?ফকির হয়ে যাব!

সেলফি বাঁজদের মতামত: পুরো ডিপার্টমেন্টের একটা গ্রুফ সেলফি তোলার চেষ্টা চলছে, সে অনেকদিন ধরে।কিন্তু,নিয়মিত ক্লাসে কেউ উপস্থিতই থাকেনা।এবার সেলফি তোলার সুযোগ এসে গেছে।সবাই উপস্থিত থাকবে।হয়ে যাবে একটি গ্রুফ সেলফি!