রামুর জোয়ারিয়ানালায় গ্রাম্য শালিসে হামলায় যুবক আহত

সোয়েব সাঈদঃ
রামুর জোয়ারিয়ানালায় গ্রাম্য শালিস চলাকালে ভূমিদস্যুচক্রের হামলায় যুবক আহত হয়েছেন। আহত মনজুর আলম (২৬) জোয়ারিয়ানালা পূর্ব মুরাপাড়া এলাকার হাজ্বী শফিক আলমের ছেলে। রবিবার (৮ মার্চ) বিকাল চারটায় জোয়ারিয়ানালা বাজারের পাশে স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা দিলীপ মহাজনের বাড়িতে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

আহত যুবক মনজুর আলম জানিয়েছেন, জোয়ারিয়ানালা ইউনিয়নের সওদাগর পাড়া এলাকার রহমত উল্লাহর ছেলে শাখাওয়ার হোসেন ও তার ছেলে আবিদ হোসাইন সানী পরিকল্পিতভাবে এ হামলা চালিয়েছেন। হামলাকারিরা তাকে লাটি-সোটা দিয়ে এবং লাথি-কিল-ঘুষি দিয়ে বেদম প্রহার করে। স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে চিকিৎসা করান।

মনজুর আলম আরো জানান, হামলার সময় তিনি পারিবারিক জমি নিয়ে একটি বিষয়ে দিলীপ মহাজনের বাড়িতে একটি শালিসে ছিলেন। দিলীপ কুমার মহাজন ও যুবলীগ নেতা জহির ওই শালিস পরিচালনা করছিলেন। হামলাকারিরা সবার সম্মুখেই তাকে মারধর করে। এসময় অনেকে এর প্রতিবাদ করলেও হামলাকারীরা সবাইকে উল্টো ভয়ভীতি দেখিয়ে এ হামলার ঘটনা সংগঠিত করে।

তিনি আরো জানান, দীর্ঘদিন পূর্বে তার পৈত্রিক একটি বসত ভিটে সাংসদ সাইমুম সরওয়ার কমলের হস্তক্ষেপে ভূমিদস্যুদের কবল থেকে রক্ষা পাই।
সম্প্রতি তাদের দারিদ্রতা ও অসহায়ত্বের সুযোগে এ বসত ভিটে জবর দখলের জন্য মরিয়া হয়ে উঠেন শাখাওয়াত হোসেন শাকু ও তার সহযোগিরা। এ নিয়ে তিনি কয়েকমাস পূর্বে রামু থানায় জিডিও করেন। তাই জবর-দখলে ব্যর্থ হয়ে পরিকল্পিতভাবে এ হামলার ঘটনা সংগঠিত করেছেন শাখাওয়াত হোসেন ও তার সহযোগিরা।

এ ঘটনার পর হামলাকারিরা তার পরিবারের সদস্যদের আবারো মারধর এবং মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে হয়রানির হুমকী দিচ্ছে। একারনে পরিবার পরিজন নিয়ে তিনি চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন।