এমপি কমলসহ বিভিন্ন জনের শোক প্রকাশঃ রামু খুনিয়াপালং ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম কালু’র ইন্তেকাল : জানাজা সম্পন্ন

নীতিশ বড়য়া, রামু :
কক্সবাজারের রামু উপজেলার খুনিয়াপালং ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান, বিশিস্ট ব্যাবসায়ি আলহাজ্ব আব্দুস সালাম কালু ইন্তেকাল করেছেন। ইন্নালিল্লাহি….. রাজিউন। তিনি মঙ্গলবার (৪ ফেব্রুয়ারী) ২টা ২০ মিনিটে কক্সবাজার সদর হাসপাতাল থেকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৬১ বছর। আব্দুস সালাম কালু চেয়ারম্যান স্ত্রী, ৫ মেয়ে, ১ ছেলে, নাতি-নাতনিসহ অসংখ্য আত্মীয় স্বজন রেখে যান।

আব্দুস সালাম কালু চেয়ারম্যান উপজেলার খুনিয়াপালং ইউনিয়নের ধোয়াপালং এলাকার মরহুম হাজী মতিউর রহমান সওদাগরের দ্বিতীয় ছেলে। খুনিয়াপালং ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আবদুল গণি’র ছোট ভাই, কক্সবাজার পৌরসভার প্যানেল মেয়র শাহানা আক্তার পাখি’র চাচা ও খুনিয়াপালং ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা আবদুর রহিম চৌধূরী’র জামাতা ও রামুর বিশিষ্ট ব্যবসায়ি জামাল উদ্দিন কোম্পানী ও সদর উপজেলার ঈদগাঁহ জালালাবাদ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ইমরুল হাসান রাশেদ এর শ্বাশুর।

আবদুস সালাম কালু চেয়ারম্যানের জামাতা জামাল উদ্দিন কোম্পানী জানান, সোমবার রাত ১১টার দিকে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন, খুনিয়াপালং ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আবদুস সালাম কালু। স্বজনরা তাৎক্ষণিক কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে, ওই হাসপাতালে চিকিৎসা সেবা দেয়া হয়। পরে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে তিনি ইন্তেকাল করেন।

মঙ্গলবার বিকাল ৩ টায় রাবেতা হাসপাতাল মাঠে মরহুমের জানাযার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। নামাজে জানাযায় ইমামতি করেন, হাফেজ মৌলানা মহিবুল্লাহ। জানাজা পূর্ব সংক্ষিপ্ত স্মৃতিচারণ-শোকসভায় বক্তব্য রাখেন, কক্সবাজার-৩(সদর-রামু) আসনের সংসদ সদস্য, তথ্য মন্ত্রণালয় বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য আলহাজ্ব সাইমুম সরওয়ার কমল। এছাড়া কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি, রাজারকুলের সাবেক চেয়ারম্যান জাফর আলম চৌধুরী, কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগ নেতা ও পৌরসভার সাবেক চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল আবছার, রামু উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সোহেল সরওয়ার কাজল, রামু উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান, উপজেলা যুবলীগ সভাপতি রিয়াজ উল আলম, রামু সরকারি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ আবদুল হক, খুনিয়াপালং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সাংবাদিক আবদুল মাবুদ, কক্সবাজার জেলা পরিষদ সদস্য নুরুল হক, মরহুমের বড় ভাই, সাবেক চেয়ারম্যান আবদুল গনি সওদাগর, ছোট ভাই আব্দুল হক প্রমুখ নেতৃবৃন্দ মরহুমের কর্মময় জীবনের স্মৃতিচারণ করে বক্তৃতা করেন। জানাজা শেষে মরহুম আবদুস সালাম চৌধুরী কালু চেয়ারম্যানকে স্থানীয় কবরস্থানে দাফন করা হয়। বক্তারা মরহুম আলহাজ্ব আবদুস সালাম কালু’র মৃত্যুতে গভীর শোক ও শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান এবং মরহুমের রুহের মাগফেরাত কামনা করেন। তাঁর মৃত্যুতে খুনিয়াপালং ইউনিয়নসহ রামুবাসি একজন ভাল মানুষকে হারাল।