মালয়েশিয়ায় সড়ক দূর্ঘটনায় রামুর শিক্ষক মাওলানা খোরশেদ আলমের ইন্তেকাল

সোয়েব সাঈদ:
মালয়েশিয়ায় সড়ক দূর্ঘটনায় আহত রামুর মাদরাসা শিক্ষক মাওলানা খোরশেদ আলম আজ (২২ জুলাই) শুক্রবার বাংলাদেশ সময় ভোর ৫ টা ২০ মিনিটে মালয়েশিয়ার একটি হাসপাতালে ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

মাওলানা খোরশেদ আলম রামুর ঐতিহ্যবাহী কেন্দ্রিয় জামেয়াতুল উলুম মাদরাসার সিনিয়র শিক্ষক এবং রামু উপজেলার ফতেখাঁরকুল ইউনিয়নের পশ্চিম মেরংলোয়া গ্রামের মরহুম রশিদ আহমদের ছেলে।

গত ১৭ জুলাই রাতে মালয়েশিয়ার কুলান নগরীতে মর্মান্তিক সড়ক দূর্ঘটনায় গুরুতর আহত মাওলানা খোরশেদ আলম সেখান একটি হাসপাতালের আইসিইউ’তে চিকিৎসাধিন ছিলেন।
মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিলো ৪৬ বছর। তিনি ২ স্ত্রী, ২ ছেলে, ৩ মেয়ে সহ অসংখ্য আত্মীয়-স্বজন, গুনগ্রাহী রেখে গেছেন।

ছোট ভাই মোহাম্মদ রাশেদুল আলম মাওলানা খোরশেদ আলমের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানালেন, মরদেহ দেশে নিয়ে আসার প্রক্রিয়া চলছে।

রামু জামেয়াতুল উলুম মাদরাসার মুহতামিম মাওলানা হাফেজ শামসুল হক জানিয়েছেন, মাদরাসার নিবেদিতপ্রাণ এ শিক্ষকের মৃত্যুতে মাদরাসার শিক্ষক-শিক্ষার্থীসহ পুরো এলাকাবাসীর মাঝে শোকাবহ পরিবেশ বিরাজ করছেন। তিনি মরহুমের আত্মার মাগফেরাত কামনা করেছেন।

উল্লেখ্য, মাওলানা খোরশেদ আলম বিগত রমজান মাসে পর্যটক ভিসা নিয়ে মালয়েশিয়া ভ্রমনে যান।