মুজিববর্ষে রামু ইউএনও’র ব্যতিক্রমী আয়োজনঃ সৈকতে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে দেশের বৃহৎ আলোকচিত্র প্রদর্শনী

সোয়েব সাঈদঃ
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষ্যে কক্সবাজার সৈকতে হয়ে গেলো বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে দেশের সর্ববৃহৎ আলোকচিত্র প্রদর্শনী। আজ বুধবার (২২ জানুয়ারি) সকালে কক্সবাজার জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেন এ প্রদর্শনী উদ্বোধন করেন।
উদ্বোধনকালে জেলা প্রশাসক বলেন, জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষ্যে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বৃহৎ চিত্র প্রদর্শনী আয়োজনের মাধ্যমে ছাত্রীরা বিরল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। এ আয়োজন সবার জন্য অনুকরণীয় এবং গৌরবের। এর মাধ্যমে নতুন প্রজন্ম জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বলিষ্ঠ নেতৃত্ব আর অসীম ত্যাগের ইতিহাস সম্পর্কে শিক্ষা অর্জন করবে।

রামু উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রণয় চাকমার উদ্যোগে আজ বুধবার (২২ জানুয়ারি) কক্সবাজারের দীর্ঘ সমুদ্র সৈকতের দরিয়ানগর পয়েন্টে রামু উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও ছাত্রীরা ব্যতিক্রমী এ আলোকচিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করেন।

রামু উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও রামু উচ্চ বালিকা বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি প্রণয় চাকমা আমাদের রামু ডটকম কে জানান, সম্প্রতি তিনি এ ধরনের উদ্যোগে কথা জানালে বিদ্যালয়ের ছাত্রীরা তাদের টিফিনের টাকায় এ বিশাল কর্মযজ্ঞ আয়োজনে আগ্রহ প্রকাশ করে। এতে সায়ও দেন তিনি। এরই প্রেক্ষিতে বিদ্যালয়ের কয়েকজন শিক্ষকের সহায়তায় ছাত্রীরা টিফিনের টাকা জমিয়ে বঙ্গবন্ধুর জীবনের বিভিন্ন চিত্রকর্ম সংগ্রহ শুরু করে। অল্পদিনে ছাত্রীরা সংগ্রহ করে বঙ্গবন্ধুর ১ হাজার চিত্র। পরে এসব ছবি দিয়ে ১ হাজার ফুট দীর্ঘ এ প্রদর্শনী আয়োজন করা হয়।

ইউএনও আরো জানান, টিফিনের টাকা আর নিজেদের শ্রমে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের চিত্র প্রদর্শণী আয়োজনে সবচেয়ে বেশি ভূমিকা ছিলো বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও ছাত্রীদের। বিশাল এ চিত্র প্রদর্শনী সর্বত্র সাড়া জাগিয়েছে। এ প্রদর্শনী দেখে সর্বস্তরের মানুষের পাশাপাশি শিক্ষার্থীরাও বঙ্গবন্ধুর জীবনের শুরু থেকে শেষ মূহুর্ত পর্যন্ত অজানা অধ্যায় জানার সুযোগ পেয়েছে।
বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক এম জয়নাল আবেদীন জানান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার আহবানে সাড়া দিয়ে বিদ্যালয়ের ছাত্রীরা স্ব-উদ্যোগে, টিফিনের টাকায় বঙ্গবন্ধুর চিত্র প্রদর্শনী আয়োজন করেছে। শিক্ষকরা যা পারেনি, তা ছাত্রীরা করেছে। ছাত্রীদের এ উদ্যোগ জেলাবাসীর জন্য গৌরবের।

প্রদর্শনী সমন্বকারি, সহকারি শিক্ষক সুমথ বড়ুয়া জানালেন, বঙ্গবন্ধুর জীবনী নিয়ে এতবড় চিত্র প্রদর্শনী দেশে ইতিপূর্বে আর হয়নি। জাতির পিতাকে নিয়ে দেশের দীর্ঘতম আলোকচিত্রটি প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতে তুলে দেয়া হবে বলেও জানান তিনি।

আলোকচিত্র প্রদর্শনীতে রামু উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রণয় চাকমা, রামু উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) চাই থোয়াইলা চৌধুরী, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা গৌর চন্দ্র দে সহ জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা, রামু উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও ছাত্রীসহ বিপুল দর্শক উপস্থিত ছিলেন। সৈকতে আসা দেশী-বিদেশী পর্যটকরাও এ প্রদর্শনী দেশে বিমোহিত হন।