ক্রীড়া উন্নয়নে কাতারের সঙ্গে জুটি বাঁধছে বাংলাদেশ

ক্রীড়া ডেস্কঃ
অভিজ্ঞ কোচ আদান-প্রদান করে খেলোয়াড়দের প্রশিক্ষণসহ দুই দেশের ক্রীড়া উন্নয়নে যৌথভাবে কাজ করবে বাংলাদেশ ও কাতার। এ বিষয়ে দুই দেশ অচিরেই একটি সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষর করবে।

গত বৃহস্পতিবার দোহায় বাংলাদেশের যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ আহসান রাসেল এমপি এবং কাতারের সংস্কৃতি ও ক্রীড়া বিষয়ক মন্ত্রী সালাহ বিন গানামের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক হয়েছে।

বৈঠকের পর মো. জাহিদ আহসান রাসেল এমপি বলেছেন, ‘সালাহ বিন গানামের সঙ্গে যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সমঝোতা চুক্তির বিষয়ে ফলপ্রসু আলোচনা হয়েছে। অচিরেই এ বিষয়ে উভয় দেশের পক্ষ হতে আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম শুরু করা হবে। এ সমঝোতা স্মারকের মধ্য দিয়ে উভয় দেশের মধ্যে যুব বিনিময় কার্যক্রম গ্রহণ করা হবে এবং উভয় দেশের অভিজ্ঞ কোচের মাধ্যমে খেলোয়াড়দের উন্নত প্রশিক্ষণ প্রদান করা হবে। যা বন্ধুপ্রতীম দুই রাষ্ট্রের মধ্যে এক নব দিগন্তের সূচনা করবে।’

মো. জাহিদ আহসান রাসেল বলেছেন, ‘কাতারের সংস্কৃতি ও ক্রীড়া বিষয়ক মন্ত্রী, আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের অভূতপূর্ব অগ্রগতির ভূয়সী প্রশংসা করেন। তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন যে, কাতার সরকার বাংলাদেশের শিক্ষা স্বাস্থ্য বাণিজ্য অবকাঠামোগত উন্নয়নে বাংলাদেশ সরকারের পাশে থাকবে।’

যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ আহসান রাসেল কাতার সরকারকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, ‘কাতার আমাদের ভালো বন্ধু। আমি আশা করি, কাতার সরকার বাংলাদেশ থেকে আরো বেশি দক্ষ জনশক্তি তাদের শ্রমবাজারে বিনিয়োগ করবে।’

প্রতিমন্ত্রী এ সময়ে কাতারের মন্ত্রী গানামকে ইয়ুথ ক্যাপিচাল ২০২০ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দিতে বাংলাদেশ সফরের আমন্ত্রণ জানান। সালাহ বিন গানাম প্রতিমন্ত্রীর আমন্ত্রণ ইতিবাচক ভাবে বিবেচনা করবেন বলে আশ্বাস প্রদান করেন।

২০২২ সালে ফিফা বিশ্বকাপ ফুটবল আয়োজন করায় কাতার সরকারকে ধন্যবাদ ও অভিনন্দন জানিয়েছেন বাংলাদেশের ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী। বৈঠকে যুব ও ক্রীড়া সচিব আখতার হোসেন ও কাতারস্থ বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আসুদ আহমেদ উপস্থিত ছিলেন।

সূত্রঃ জাগোনিউজ