রামু সেনানিবাসে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জন্মশতবার্ষিকী ক্ষণগণনা উদ্বোধন

খালেদ শহীদ, রামুঃ
রামু সেনানিবাসে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জন্মশতবার্ষিকী ক্ষণগণনা কর্মসূচী উদযাপন করা হয়েছে। শুক্রবার (১০ জানুয়ারি) বিকালে বেলুন ও কবুতর উড়িয়ে জাতীয় অনুষ্ঠানের সাথে সামঞ্জস্য রেখে ক্ষণগণনা কর্মসূচীর শুভ উদ্বোধন করেন, রামু সেনানিবাসের জিওসি ১০ পদাতিক ডিভিশন ও কক্সবাজার এরিয়া কমান্ডার মেজর জেনারেল মো. মাঈন উল্লাহ চৌধুরী ওএসপি, এডব্লিউসি, পিএসসি। দেশব্যাপী কেন্দ্রীয়ভাবে ক্ষণগণনা কর্মসূচীর অংশ হিসেবে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ১০ পদাতিক ডিভিশন মনোজ্ঞ ও বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। ঢাকা থেকে সরাসরি সম্প্রচারিত কেন্দ্রীয়ভাবে আয়োজিত অনুষ্ঠানটি এলইডি ষ্ক্রীনের মাধ্যমে রামু সেনানিবাসে প্রদর্শিত হয় এবং অভ্যাগতদের সৌজন্যে দেশাত্ববোধক গান ও ডিসেপ্লের আয়োজন করা হয়।

বাংলাদেশের স্বপ্নদ্রষ্টা ও কান্ডারী মহান রাষ্ট্রনায়ক জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিজুর রহমানের অবদানের কথা গভীর শ্রদ্ধাভাবে স্মরণ করে অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি রামু সেনানিবাসের জিওসি মেজর জেনারেল মো. মাঈন উল্লাহ চৌধুরী বলেন, আগামী ১৭ মার্চ হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী ও বাঙ্গালী জাতির অহংকার আমাদের জাতির পিতার একশততম জন্মদিন। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান আজীবন স্বপ্ন দেখেছেন একটি সুজলা-সুফলা ও সুখি বাংলাদেশের। এদেশের মাটি ও মানুষের জন্য এই মহান পুরুষ নিজের অন্তরে যে ভালবাসা লালন করতেন সেই ভালবাসাকে ধারণ করতে হবে। জাতির পিতা’র সেই মমতাকে শক্তিতে পরিণত করে, আমরা এগিয়ে যাচ্ছি উন্নয়নের মহাসড়কে। জাতির পিতা আমাদের মাঝে বেঁচে থাকবেন আজীবন।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জন্মশতবার্ষিকী ক্ষণগণনা কর্মসূচী উদযাপন অনুষ্ঠানে রামু সেনানিবাসের সামরিক ও বেসামরিক কর্মকর্তা-কর্মচারী, রামু ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজ, রামু ক্যান্টমেন্ট ইংলিশ স্কুলের ছাত্রছাত্রী ও বিএনসিসি’র সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।