কক্সবাজার সোসাইটির জরুরী সভা অনুষ্ঠিত: নিন্দা প্রস্তাব গৃহীত

প্রেস বিজ্ঞপ্তি:
কক্সবাজারের ঐতিহ্যবাহী স্বেচ্ছাসেবী সামাজিক মানবাধিকার ও পরিবেশবাদী সংগঠন কক্সবাজার সোসাইটির এক জরুরী সভা সোসাইটির সভাপতি কমররেড গিয়াস উদ্দিনের সভাপতিত্বে সোসাইটির অস্থায়ী কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়।

সোসাইটির সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক আমান উল্লাহর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সোসাইটির সিনিয়র সহ-সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার বদিউল আলম, সহ-সভাপতি সাংবাদিক জুয়েল চৌধুরী ও আইন বিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট আহসান উল্লাহ, এডভোকেট আবদুর রহিম, ড. মোঃ নুরুল আবছার, অধ্যাপক মোঃ ইসলাম, সাংবাদিক আব্দুল মালেক নাঈম, কবি খালেদ মাহবুব মোর্শেদ, আমিরুল ইসলাম মোঃ রাশেদ, প্রবাল চক্রবর্তী, অনিল দত্ত, মোঃ নুরুল হুদা, ই.এম.এ. হায়দার, রাজিব পাল, নূর মোহাম্মদ, প্রাণেশ চক্রবর্তী প্রমুখ।

সভায় বক্তারা বলেন- বাংলা ও বাঙ্গালীর চিরায়ত অবস্থান অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গঠনে প্রগতিশীল সারাদেশের জনগণের সাথে কক্সবাজার সোসাইটির মতাদর্শ এক ও অভিন্ন। তারই পথ ধরে সাম্প্রতিক কতিপয় ধর্মান্ধ বিপথগামী মানুষের অশুভ পায়তারায় সারা দেশের সাথে আমরাও উদ্বিগ্ন।

এরই ইস্পিত গৌরবের সমুজ্জ্বল সংগঠন কক্সবাজার সোসাইটি জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে তৎপর। উক্ত সভায় সর্বসম্মতিক্রমে এহেন অশুভ চক্রান্তের প্রতিবাদে নিন্দা প্রস্তাব গৃহীত হয় এবং সাম্প্রতিক দ্বীপ উপজেলা কুতুবদিয়া, মহেশখালী ও উপকূলীয় পেকুয়ার জলোচ্ছ্বাসে ক্ষতিগ্রস্থ মানুষের সাথে সহমর্মিতা প্রকাশ করা হয়। সাথে সাথে সদাশয় সরকার মহোদয়ের সংশ্লিষ্ট দপ্তরগুলোকে সর্বান্তকরণে সাহায্যার্থে এগিয়ে আসার আহ্বান জানানো হয়।

পাশাপাশি অগ্রাধিকার ভিত্তিতে ক্ষতিগ্রস্থ বেড়ীবাঁধ পুনঃনির্মাণ পূর্বক দ্রুততম সময়ের মধ্যে জলবায়ু উদ্বাস্তুদের সহায়তায় এগিয়ে আসার আহ্বানও জানানো হয়।

সভায় দায়িত্বরত সাধারণ সম্পাদকের বারংবার অনীহা ও ব্যক্তিগত অপারগতার প্রেক্ষিতে স্বতঃ স্ফূর্তভাবে আমান উল্লাহকে সাধারণ সম্পাদক পদ থেকে স্বসম্মানে অব্যাহতি এবং ড. মোঃ নুরুল আবছারকে সাধারণ সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) হিসেবে মনোনীত করা হয়েছে। সভায় এও সিদ্ধান্ত হয় যে, আমান উল্লাহ সাবেক সাধারণ সম্পাদক হিসেবে জেষ্ঠতার সম্মানে বিবেচিত হবেন।