লামায় একমাসে ২টি হাতির বাচ্চাসহ ৩টি বন্যহাতির মৃত্যু !

মোঃ ইউছুপ মজুমদার, লামা (বান্দরবান) প্রতিনিধি :

বান্দরবানের লামায় অসুস্থ হয়ে আরেকটি হাতি মারা গেছে। কয়েকদিন ধরে অসুস্থ ছিল হাতিটি। উপজেলার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের কুমারী বড়ছন খোলার আগা নামক স্থানে হাতিটি মারা যায়।

শনিবার (৩০ নভেম্বর) সকাল থেকে লামা বন বিভাগের লোকজন বঙ্গবন্ধু সাফারিপার্কের ভেটেরিনারি সার্জন ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ও সদর রেঞ্জ কর্মকর্তা মো. আনোয়ার হোসেন খানসহ একটি টিম ঘটনাস্থলে গিয়ে অসুস্থ হাতিটিকে চিকিৎসা সেবা প্রদান করেন। এক পর্যায়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার সকালে হাতিটি মারা যায়। হাতিটি মারা গেলে পরে মাটি চাঁপা দেওয়া হয়।

স্থানীয়দের তথ্যমতে, হাতিটি কয়েকদিন ধরে বড়ছন খোলার আগায় অসুস্থ অবস্থায় পড়ে থাকার পর শনিবার মৃত্যু হয়। চিকিৎসা না পাওয়ায় হাতিটি মারা যায় বলে জানিয়েছে এলাকাবাসী। গত এক মাসে এ নিয়ে ৩টি হাতির মৃত্যু হলো।

ফাঁসিয়াখালী ইউপি মেম্বার মো. আলমগীর চৌধুরী জানান, বড়ছন খোলার একটি বাগানে এই হাতিটি অসুস্থ অবস্থায় দীর্ঘদিন ধরে অবস্থান করে আসছে। শারীরিক দুর্বলতার কারণে সে নড়াচড়া করতে পারেনি। লামা বন বিভাগের সদর রেঞ্জ কর্মকর্তা মো. আনোয়ার হোসেন খান বলেন, চলাচলের সময় বড় কোন পাহাড় থেকে পড়ে হাতিটি আঘাত প্রাপ্ত হয়। আঘাতে গুরুতর অসুস্থ হয় বলে প্রাথমিকভাবে ধারনা করা হচ্ছে। তবে ময়নাতদন্তের জন্য হাতিটির নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে । হাতিটির বয়স ২৪-২৫ বছর হতে পারে বলে জানান তিনি ।

প্রসংগত,এর আগে গত ৬ নভেম্বর একই ইউনিয়নের ইয়াংছা সলিমুল হক চৌধুরীর বাগানে একটি ও কুমারী চাককাটাররিতে একটি বাচ্চা বন্য হাতির মৃত্যু হয়।