পন্ডিত সত্যপ্রিয় মহাথের’র মরদেহে রামু সেনা নিবাসের জিওসিসহ সর্বস্তরের মানুষের ফুলেল শ্রদ্ধা আর ভালোবাসা

নীতিশ বড়ুয়া, রামুঃ
বাংলাদেশের বৌদ্ধদের অন্যতম ধর্মীয় গুরু, বাংলাদেশ সরকার কর্র্তৃক একুশে পদকে ভুষিত, বাংলাদেশ সংঘরাজ ভিক্ষু মহাসভার প্রাক্তন সভাপতি, রামু কেন্দ্রীয় সীমা মহাবিহারের অধ্যক্ষ, উপ-সংঘরাজ পন্ডিত সত্যপ্রিয় মহাথের’র মরদেহে ফুলেল শ্রদ্ধা জানিয়েছেন রামু ১০ পদাতিক ডিভিশন (রামু সেনানিবাস) এর জিওসি মেজর জেনারেল মো. মাইন উল্লাহ চৌধুরী (পি.এস.সি, এন.ডি.সি, এ.এফ.ডব্লিউ.সি.)। তিনি ৫ অক্টোবর শনিবার বেলা ১২ টার দিকে পুষ্পস্তবক নিয়ে রামু কেন্দ্রীয় সীমা মহাবিহারে পৌঁছে প্রয়াত উপ-সংঘরাজ পন্ডিত সত্যপ্রিয় মহাথের’র মরদেহে ফুলেল শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এসময় তিনি মরদেহের পাশে কিছুক্ষণ নিরবে দাঁড়িয়ে থাকেন।

এছাড়া শনিবার সকাল থেকে রামু কেন্দ্রীয় সীমা মহাবিহার প্রাঙ্গন ছিলো শোকহত ভক্তদের পদভাবে মুখরিত। প্রয়াত বৌদ্ধ ধর্মীয় গুরুকে শ্রদ্ধা জানাতে দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে ছুটে আসছেন বৌদ্ধ নেতৃবৃন্দ ও জনগোষ্টি। তাঁরা প্রয়াত গুরু ভন্তেকে ফুলেল শ্রদ্ধা জানিয়ে বন্দনা জানান। এসময় অনেকই আবেগাপ্লুত হয়ে চোখের জলে শ্রদ্ধেয় গুরুকে শ্রদ্ধা জানাতেও দেখা যায়।

গত ৩ অক্টোবর, বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ১২.৫৫টায় রাজধানীর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ^বিদ্যালয় হাসপাতালে পন্ডিত সত্যপ্রিয় মহাথের চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ^াস ত্যাগ করেন। পরদিন শুক্রবার বিকাল ৩টায় পÐিত সত্যপ্রিয় মহাথের’র মরদেহ বহনকারি গাড়ীটি রামু বাইপাস ফুটবল চত্বরে পৌঁছালে হাজারো বৌদ্ধ নারী-পুরুষে মাঝে শোকাবহ পরিবেশের সৃষ্টি হয়। সেখান থেকে কক্সবাজার-৩ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব সাইমুম সরওয়ার কমলের নেতৃত্বে, প্রশাসনের কর্মকর্তাদের তত্ত¡াবধানে বৌদ্ধরা খালিপায়ে সর্বজন শ্রদ্ধেয় বৌদ্ধ ভিক্ষুকে বহনকারি গাড়ি নিয়ে রামু কেন্দ্রীয় সীমা মহাবিহারে পৌঁছায়।

পন্ডিত সত্যপ্রিয় মহাথের’র মরদেহ ধর্মীয় কার্যাদি শেষে সন্ধ্যা ৬ টার দিকে কেন্দ্রীয় সীমা মহাবিহারে প্রবেশ করান। এ সময় ধর্মীয় গুরুকে এক নজর দেখতে ভিড় করেন বৌদ্ধ সম্প্রদায়সহ বিভিন্ন ধর্মাবলম্বী লোকজন।

রামু কেন্দ্রীয় সীমা মহাবিহারের সাধারণ সম্পাদক রাজু বড়ুয়া জানান, আগামী ৯ অক্টোবর, বুধবার প্রয়াত পন্ডিত সত্যপ্রিয় মহাথের’র মহাসংঘদান, পেটিকাবদ্ধ ও স্মৃতিচারণসভা অনুষ্ঠিত হবে।