ইউএনও এবং ওসির হস্তক্ষেপে নাইক্ষ্যংছড়ি মাদ্রাসায় শান্তির বারতা

হাফিজুল ইসলাম চৌধুরী :
বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়িতে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) সাদিয়া আফরিন কচি ও থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আনোয়ার হোসেনের হস্তক্ষেপে মদিনাতুল উলুম মডেল আলিম ইনস্টিটিউট মাদ্রাসায় ফিরে এসেছে শান্তির বারতা।

গত ১৪ সেপ্টেম্বর (শনিবার) মাদ্রাসার অফিস কক্ষে একই প্রতিষ্ঠানের চার শিক্ষকের হামলায় আহত হন অধ্যক্ষ মাওলানা মোহাম্মদ সৈয়দ হোসাইন। এ ঘটনায় শিক্ষার্থীরা ক্ষুব্ধ হয়ে বিক্ষোভ মিছিল করে হামলাকারী শিক্ষকদের শাস্তির দাবি জানান। এমন সময় তাৎক্ষণিক থানার ওসিকে প্রধান করে পাঁচ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেন ইউএনও। এবং তদন্ত প্রতিবেদন হাতে না আসা পর্যন্ত অভিযুক্ত শিক্ষকদের মাদ্রাসার কার্যক্রম থেকে বিরত থাকতে নির্দেশ দেন।

২১ সেপ্টেম্বর (শনিবার) দুপুরে নাইক্ষ্যংছড়ি মদিনাতুল উলুম মডেল আলিম ইনস্টিটিউট মাদ্রাসায় গিয়ে দেখা যায়- সেই থমথমে পরিস্থিতি আর নেই। যথারীতি চলছে শ্রেণি কার্যক্রম। মূলত ইউএনও এবং ওসির কল্যানে অভিভাবক আর শিক্ষার্থীদের ভীতি দূর হয়েছে।

মাদ্রাসা প্রসঙ্গে কয়েকজন অভিভাবক জানান- অফিসকক্ষে মাদ্রাসা অধ্যক্ষের ওপর হামলাকারীরা পার পেয়ে গেলে ভবিষ্যতে এ ধরণের ঘটনা আবারও ঘটতে পারে।

নাইক্ষ্যংছড়ি থানার ওসি মো. আনোয়ার হোসেন বলেন- মাদ্রাসায় অপ্রীতিকর পরিস্থিতি মোকাবেলার পাশাপাশি সার্বিক বিষয় নিয়ন্ত্রনে পুলিশ সদস্যরা তৎপর রয়েছে।