গর্জনিয়ার নানা অপকর্মের হোতা সরওয়ার আটক : ১ বছরের কারাদন্ড

স্টাফ রিপোর্টার:
নাইক্ষ্যংছড়ির বাইশারী ইউনিয়নের এক কলেজ পড়ুয়া ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগে রামুর গর্জনিয়ার বড়বিল গ্রামের নানা অপকর্মের হুতা সরওয়ার জাহান (৩০) কে আটক করেছে পুলিশ। সে নুরুল আবছারের ছেলে। রোববার রাতে বাইশারী পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের উপ-পরিদর্শক (এসআই) আনিছুর রহমান তাঁকে আটক করে। সোমবার দুপুরে সমালোচিত সরওয়ারকে উপজেলা ভ্রাম্যমান আদালতে হাজির করা হয়।

আদালতের বিজ্ঞ বিচারক ও নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এএসএম শাহেদুল ইসলাম আমাদের রামু ডটকমকে বলেন, ফেসবুকে অশ্লীল ছবি ছড়িয়ে দেয়ার হুমকি প্রদানের মাধ্যমে যৌন হয়রানির দায়ে সরোয়ার জাহান তার স্বীকারোক্তি ও সাক্ষ্য প্রমাণের ভিত্তিতে বাংলাদেশ দন্ডবিধির ৫০৯ ধারায় ১ (এক) বছরের বিনাশ্রম কারাদন্ডে দন্ডিত হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, সরওয়ার একজন সাইবার ক্রিমিনাল। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সরকার বিরোধী অপতৎপরতা, জাতীয় পতাকার অবমাননা ও জঙ্গিবাদের প্রচারের কারণে দুর্ধর্ষ সাইবার ক্রিমিনাল সরোয়ার-এর বিরুদ্ধে ‘তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (সংশোধন) আইন, ২০১৩’-এর ৫৭ ধারার অপরাধের দায়ে মামলা দায়েরের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

নাইক্ষ্যংছড়ি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো.আবুল খায়ের ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে আমাদের রামু ডটকমকে বলেন, সরওয়ারের বিরুদ্ধে ‘তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

এলাকার সচেতনমহল বলছেন, সরওয়ার ফেসবুকে নানা অশ্লীল মন্তব্য ও সরকার বিরোধী অপতৎপরতা চালিয়ে আসছে দীর্ঘদিন ধরে। তাঁকে রিমান্ডে নিলে অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য বেরিয়ে আসবে।

এদিকে সরওয়ারকে আদালত থেকে ছাড়িয়ে নিতে একটি মহল লাখ লাখ টাকার মিশন নিয়ে মাঠে নেমেছে বলে এলাকায় গুঞ্জন শুরু হয়েছে। তাই এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট সকলের হস্তক্ষেপ কামনা করছেন ভুক্তভোগীরা।