আজ খুশির ঈদ

ধর্ম ডেস্কঃ
এক মাস সিয়াম সাধনার পর আজ বুধবার বাংলাদেশে উদযাপিত হচ্ছে ঈদুল ফিতর।

ইসলাম ধর্মাম্বলীদের সবচেয়ে বড় এই ধর্মীয় উৎসবের জন্য প্রস্তুত পুরো দেশ। ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করত কর্মস্থল ছেড়ে গ্রামে স্বজনদের কাছে ফিরে গেছেন লাখ লাখ মানুষ।

ঈদ ও শব-ই-কদরের ছুটির সঙ্গে সাপ্তাহিক ছুটি মিলিয়ে পাঁচ দিনের ছুটিতে সপ্তাহের প্রথম দিকেই রাজধানী ছেড়েছেন অনেকে।

দেশের প্রায় সব মুসলিম পরিবারেই ঈদ সামনে রেখে নতুন পোশাক কেনা হয়। সামর্থ্য অনুযায়ী স্বজনদের জন্য নতুন পোশাক কেনার পাশাপাশি প্রতিটি পরিবারেই সেমাইসহ বিভিন্ন মুখরোচক বিশেষ খাবারের আয়োজন করা হয়।

বুধবার সকালে ঈদের জামাত দিয়ে শুরু হবে এই আনন্দ উৎসব। ঈদ আনন্দে হিংসা-বিদ্বেষ ঘুচে দেশবাসীর সম্প্রীতির বন্ধনে এক সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ে উঠবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

দেশবাসীকে ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন রাষ্ট্র ও সরকার প্রধান। কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া এবং জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদও দেশবাসীকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখার খবর না পেয়ে প্রথমে বৃহস্পতিবার ঈদ উদযাপনের ঘোষণা আসে। পরে মধ্যরাতে দ্বিতীয় দফা বৈঠক করে কুড়িগ্রাম ও নীলফামারিতে চাঁদ দেখতে পাওয়ার কথা জানিয়ে বুধবার ঈদ উদযাপনের ঘোষণা দেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ও জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভাপতি শেখ মো. আব্দুল্লাহ।

প্রতিবারের মতো এবারও ঈদুল ফিতরের প্রধান জামাত হবে ঢাকায় জাতীয় ঈদগাহ ময়দানে সকাল সাড়ে ৮টায়।

সুপ্রিম কোর্ট সংলগ্ন জাতীয় ঈদগাহ ময়দানে এই জামাতে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ, মন্ত্রিসভার সদস্য, সংসদ সদস্য, রাজনীতিবিদসহ সব শ্রেণি-পেশার মানুষ অংশ নেবেন।

এবার ঈদের প্রধান জামাতে ইমামতি করবেন বায়তুল মুকাররম জাতীয় মসজিদের সিনিয়র পেশ ইমাম হাফেজ মাওলানা মুহাম্মদ মিজানুর রহমান। বিকল্প ইমাম হিসেবে থাকবেন মিরপুর জামেয়া আরাবিয়ার শায়খুল হাদিস মাওলানা সৈয়দ ওয়াহীদুযযামান।

ঈদ জামাত ঘিরে জাতীয় ঈদগাহের নিরাপত্তায় পর্যাপ্ত ব্যবস্থা নিয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। নামাজ পড়তে যাওয়ার সময় জায়নামাজ ও ছাতা ছাড়া অন্য কিছু বহন না করতে মুস্ল্লিদের পরামর্শ দিয়েছে ঢাকার মহানগর পুলিশ।

ঢাকার পুলিশ কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়া সোমবার ঈদগাহ ময়দানের নিরাপত্তা ব্যবস্থা পর্যবেক্ষণ করে সন্তুষ্টি প্রকাশ করে সাংবাদিকদের বলেন, সকালে নামাজে আসা সবাইকে তিন ধাপে তল্লাশি শেষে ঈদগাহে প্রবেশ করতে হবে।

চাঁদ দেখা কমিটির সিদ্ধান্ত বদল, ঈদ বুধবার

ঈদের জামাতে সুষ্পষ্ট কোনো নিরাপত্তার হুমকি না থাকলেও সবাইকে সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়েছেন ঢাকার পুলিশ কমিশনার।

এদিকে ঈদের সকালে বৃষ্টি হতে পারে বলে আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে। আবহাওয়া বিরূপ থাকলে ঈদের প্রধান জামাত হবে বায়তুল মুকাররম জাতীয় মসজিদে।

সেখানে এবারও পাঁচটি জামাত হবে। প্রথম জামাত হবে সকাল ৭টায়। এরপর পর্যায়ক্রমে সকাল ৮টা, ৯টা, ১০টা এবং পৌনে ১১টায় পরের জামাতগুলো হবে।

জাতীয় ঈদগাহে যারা গাড়ি নিয়ে নামাজ পড়তে যাবেন, তাদের গাড়ি রাখার জন্য মৎস্য ভবন থেকে শাহবাগ, ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনের ভেতরে, শিল্প একাডেমির সামনের রাস্তা, দোয়েল চত্বরে ব্যারিকেডের বাইরে, ফজলুল হক হলের ব্যারিকেডের বাইরে এবং প্রেস ক্লাব লিংক রোড ব্যারিকেডের বাইরে স্থান নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছে।

ভারত-পাকিস্তানে ঈদ বুধবার

সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজায় ঈদের জামাত হবে সকাল ৮টায়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মসজিদে সকাল ৮টা ও ৯টায় দুটি জামাত হবে।

জাতীয় ঈদগাহ ছাড়াও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ব্যবস্থাপনায় ৩০২টি স্থানে এবার ঈদের জামাত হবে। অন্যদিকে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের ৫৭টি ওয়ার্ডে ২২৮টি জামাতের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন এলাকার প্রতিটি ওয়ার্ডে পাঁচটি করে জামাত হবে। স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলররা এসব জামাতের ব্যবস্থাপনায় থাকবেন।

চট্টগ্রামে প্রধান ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হবে জমিয়তুল ফালাহ মসজিদ ময়দানে। সকাল ৮টায় প্রথম ও প্রধান ঈদ জামাতের ইমামতি করবেন জমিয়তুল ফালাহ মসজিদের খতিব সৈয়দ আবু তালেব মোহাম্মদ আলাউদ্দীন আল কাদেরী। আর সকাল ৯টায় দ্বিতীয় ঈদ জামাতের ইমামতি করবেন মসজিদের পেশ ইমাম আহমুদুল হক।

বন্দর নগরীর ৪১টি ওয়ার্ডের মসজিদে মোট ১৬৪টি ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছেন সিটি মেয়র আ জ ম নাছিরউদ্দিন।

কখন কোথায় ঈদের জামাত

রাজশাহী নগরীর হযরত শাহমখদুম (র.) কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ময়দানে সকাল ৮টায় প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হবে। তবে আবহাওয়া প্রতিকূল হলে রাজশাহীর প্রধান জামাতটি হবে শাহমখদুম (র.) দরগাহ শরিফ মসজিদে।

রাজশাহী জেলার বিভিন্ন এলাকার ঈদগাহগুলোতেও সকাল ৭টায় থেকে সাড়ে ৮টার মধ্যে ঈদের নামাজ অনুষ্ঠিত হবে।

খুলনা নগরীতে প্রধান জামাত হবে সকাল ৮টায় সার্কিট হাউজ ময়দানে। এছাড়া দ্বিতীয় প্রধান জামাত হবে খুলনা টাউন জামে মসজিদে সকাল ৯টায়। আবহাওয়া প্রতিকূল হলে টাউন জামে মসজিদে প্রথম ও প্রধান জামাত সকাল ৮টা, দ্বিতীয় জামাত ৯টা এবং তৃতীয় ও শেষ জামাত ১০টায় অনুষ্ঠিত হবে।

এছাড়া কোর্ট জামে মসজিদে সকাল সাড়ে ৮টায় একটি জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

বরিশাল নগরীতে প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হবে হেমায়েত উদ্দিন কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ময়দানে সকাল সাড়ে ৮টায়। বরিশাল নগরীর বেশ কয়েকটি জায়গায় দুটি করে জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

রংপুর নগরীতে সকাল সাড়ে ৮টায় প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হবে কালেক্টরেট ঈদগাহ মাঠে। তবে বৈরী আবহাওয়া থাকলে সকাল সাড়ে ৯টায় রংপুর কোর্ট মসজিদে ঈদের প্রধান জামাত হবে।

প্রস্তুত জাতীয় ঈদগাহ

ঈদুল ফিতর উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ তার বাণীতে দেশবাসীসহ বিশ্ববাসীকে আন্তরিক শুভেচ্ছা জানিয়ে বলেছেন, “ঈদ-উল-ফিতর মুসলমানদের অন্যতম প্রধান ধর্মীয় উৎসব। মাসব্যাপী সিয়াম সাধনা ও সংযম পালনের পর অপার খুশি আর আনন্দের বারতা নিয়ে আমাদের মাঝে সমাগত হয় পবিত্র ঈদুল ফিতর। ঈদ সবার মধ্যে গড়ে তোলে সৌহার্দ্য, সম্প্রীতি ও ঐক্যের বন্ধন।”

ইসলামকে শান্তি ও কল্যাণের ধর্ম অভিহিত করে তিনি বলেন, “এখানে হিংসা-বিদ্বেষ, হানাহানি, কূপমণ্ডুকতার কোনো স্থান নেই। মানবিক মূল্যবোধ, পারস্পরিক সহাবস্থান, পরমতসহিষ্ণুতা ও সাম্যসহ বিশ্বজনীন কল্যাণকে ইসলাম ধারণ করে। ইসলামের এই সুমহান বার্তা ও আদর্শ সবার মাঝে ছড়িয়ে দিতে হবে।”

“ইসলামের মর্মার্থ ও অন্তর্নিহিত তাৎপর্য মানবতার মুক্তির দিশারি হিসেবে দিকে দিকে ছড়িয়ে পড়ুক, বিশ্ব ভরে উঠুক শান্তি আর সৌহার্দ্যে।”

দেশবাসী ও বিশ্বের সব মুসলমানকে আন্তরিক শুভেচ্ছা জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার বাণীতে বলেছেন, “ঈদ শান্তি, সহমর্মিতা ও ভ্রাতৃত্ববোধের অনুপম শিক্ষা দেয়। হিংসা ও হানাহানি ভুলে মানুষ সাম্য, মৈত্রী ও সম্প্রীতির বন্ধনে আবদ্ধ হয়। ঈদ ধনী-গরিব নির্বিশেষে সকলের জীবনে আনন্দের বার্তা বয়ে নিয়ে আসে।

“ব্যক্তি, পরিবার, সমাজ ও রাষ্ট্রীয় জীবনে মুসলমানদের আত্মশুদ্ধি, সংযম, সৌহার্দ্য ও সম্প্রীতির মেলবন্ধন পরিব্যাপ্তি লাভ করুক- এটাই হোক ঈদ উৎসবের ঐকান্তিক কামনা। হাসি-খুশি ও ঈদের অনাবিল আনন্দে প্রতিটি মানুষের জীবন পূর্ণতায় ভরে উঠুক।”

হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ তার বাণীতে দেশ ও মানুষের উন্নয়ন ও কল্যাণে সহনশীল রাজনৈতিক ধারা অব্যাহত রাখতে সবার প্রতি আহবানও জানিয়েছেন।

ফিলিস্তিনিদের অধিকার নিশ্চিতে বিশ্ব সম্প্রদায়ের কার্যকর উদ্যোগ নিতেও আহ্বান জানান তিনি।

ঈদের সকালে বৃষ্টির আভাস

ঈদের প্রধান জামাতের পর প্রতিবারের মতো রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ সকাল ১০টায় বঙ্গভবনে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন। সেখানে মন্ত্রিপরিষদ ও সংসদ সদস্য ছাড়াও রাজনৈতিক নেতা, কূটনীতিক, পেশাজীবী, সাংবাদিক ও ধর্মীয় নেতাদের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।

প্রতি ঈদে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবনে সর্বস্তরের জনগণসহ কূটনীতিক ও বিচারপতিদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন। এই ঈদে শেখ হাসিনা ফিনল্যান্ডে অবস্থান করছেন।

শেখ হাসিনা দেশের বাইরে থাকায় এবার বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন দলটির নেতারা।

ঈদের দিন সকাল সাড়ে ১১টায় সুশীল সমাজের প্রতিনিধি ও কূটনীতিক এবং বেলা সাড়ে ১২টায় রাজনৈতিক দলের নেতা-কর্মী এবং সর্বস্তরের জনসাধারণের সাথে ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরসহ কেন্দ্রীয় নেতারা।

বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া এবার দ্বিতীয় দফায় বন্দী অবস্থায় রোজার ঈদ পালন করছেন। দুই মাসের বেশি সময় ধরে তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।

ঈদের সকালে দলের প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের কবরে ফুল দেবেন বিএনপি নেতারা।

এদিকের ঈদের নামাজের পর বনানীতে দলীয় চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে সকাল ১১টায় ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন এরশাদ।

ঈদ উপলক্ষে শনিবার দেশের বিভিন্ন সরকারি হাসপাতাল, কারাগার, শিশু পরিবার, ছোটমনি নিবাস, সামাজিক প্রতিবন্ধী কেন্দ্র, সরকারি আশ্রয় কেন্দ্র, শিশু বিকাশ কেন্দ্র, সেইফ হোম, ভবঘুরে কল্যাণ কেন্দ্র ও দুস্থ কল্যাণ কেন্দ্রে উন্নতমানের খাবার পরিবেশন করা হবে।

বাংলাদেশ বেতার, বাংলাদেশ টেলিভিশন ও বেসরকারি টেলিভিশনগুলো ঈদের আগে-পরে কয়েক দিন ধরে বিশেষ অনুষ্ঠান প্রচার করছে।

ঈদ ঘিরে জাতীয় পর্যায়ের সঙ্গে সমন্বয় রেখে স্থানীয়ভাবেও সিটি করপোরেশন, জেলা প্রশাসন, উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে দেশব্যাপী বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।

সূত্রঃ বিডিনিউজ