গুলশান হামলা : নিহতদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন আজ

আজ সোমবার গুলশানে সন্ত্রাসী হামলায় নিহতদের  প্রতি শ্রদ্ধা জানাবেন সর্বস্তরের জনগণ। নিহতদের স্মরণে দু’দিনব্যাপী রাষ্ট্রীয় শোক  কর্মসূচির শেষ দিনে বনানীস্থ আর্মি স্টেডিয়ামে এ শ্রদ্ধা নিবেদন করা হবে।  সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা জানানোর জন্য নিহত ২০ জনের মরদেহ আর্মি স্টেডিয়ামে নেওয়া হবে। শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে মরদেহ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সূত্রে জানা গেছে, সকাল ১০টায় নিহতদের কফিনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদনের মধ্য দিয়ে আনুষ্ঠানিকতার শুরু হবে। প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শ্রদ্ধা জানানোর পর দলীয় সভাপতি হিসেবে দলের পক্ষ থেকেও শ্রদ্ধা নিবেদন করবেন তিনি। প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা নিবেদনের পর সংসদে বিরোধী দল জাতীয় পার্টি, মন্ত্রিসভার সদস্য ও তিন বাহিনীর প্রধানগণ শ্রদ্ধা জানাবেন। এরপর শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য আর্মি স্টেডিয়াম উন্মুক্ত করে দেওয়া হবে। বেলা ১২টা পর্যন্ত বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ও সাধারণ মানুষ নিহতদের মরদেহে শ্রদ্ধা নিবেদনের সুযোগ পাবেন বলে প্রধানমন্ত্রীর মিডিয়া উইং থেকে জানানো হয়েছে। এ সময়ে ঢাকাস্থ বিভিন্ন দূতাবাসের প্রতিনিধিরাও সন্ত্রাসী হামলায় নিহদের  প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করবেন।

শ্রদ্ধা জানাবে বিএনপি‍: গুলশান হামলায় নিহতদের কফিনে শ্রদ্ধা জানাবে বিএনপি। দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল আর্মি স্টেডিয়ামে গিয়ে শ্রদ্ধা জানাবেন বলে চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইং কর্মকর্তা শায়রুল কবির গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন।
আর্মি স্টেডিয়ামে শ্রদ্ধা নিবেদন ছাড়াও দ্বিতীয় দিনের রাষ্ট্রীয় শোকের অংশ হিসেবে গুলশানে নিহতদের স্মরণে দেশের মসজিদ, মন্দির, গির্জা, প্যাগোডায় আজ বিশেষ প্রার্থনার আয়োজন করা হয়েছে বলে আওয়ামী লীগের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে। দুই দিনের শোক অনুষ্ঠানের প্রথম দিনে রবিবার গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারি রেস্তোরাঁ প্রাঙ্গনে গিয়ে নিহত বিদেশিদের স্বজন  ও নানা শ্রেণিপেশার জনগণ শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

সেনা সদর ও আইনশৃংখলা বাহিনী সূত্রে জানা গেছে, শ্রদ্ধা নিবেদন উপলক্ষে আর্মি স্টেডিয়াম এলাকায় ইতোমধ্যে কঠোর নিরাপত্তা বিধান করা হয়েছে। সেনাবাহিনীর ব্যবস্থাপনায় এই শ্রদ্ধা নিবেদন অনুষ্ঠানটি হলেও পুলিশসহ সরকারের অন্যান্য বাহিনীর সদস্যদের ওই এলাকায় মোতায়েন করা হয়েছে।

গত শুক্রবার রাত পৌনে ৯টার দিকে গুলশান ২ নম্বরের হলি আর্টিজান বেকারি রেস্তোরাঁয় হামলা চালায় কয়েকজন সশস্ত্র  জঙ্গি। তারা দেশি-বিদেশিদের জিম্মি করে। ঘটনার পর অভিযান চালাতে গেলে জঙ্গিদের হামলায় বনানী থানার ওসি সালাউদ্দিন ও গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) সহকারী কমিশনার রবিউল ইসলাম নিহত হন। জঙ্গিরা রাতেই তিন বাংলাদেশিসহ ২০ জিম্মিকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে হত্যা করে। শনিবার সকালে যৌথ বাহিনী ওই রেস্টুরেন্টে  কমান্ডো অভিযান চালায়। এতে ছয় জঙ্গি নিহত হয়। একজনকে গ্রেফতার করা  হয়। ১৩ জন জিম্মিকে জীবিত উদ্ধার করা হয়।

বিদেশিদের মধ্যে ৯ জন ইতালীয়,৭ জন জাপানি ও একজন ভারতীয়। বাংলাদেশিদের মধ্যে একজন যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী ছিলেন।

আজ  লাশ হস্তান্তরঃ গুলশান হামলায় নিহতদের লাশ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হবে আজ সোমবার। আইএসপিআর জানিয়েছে, আর্মি স্টেডিয়ামে নিহতদের সর্বস্তরের জনগণের শ্রদ্ধা নিবেদনের পর সেখান থেকেই লাশগুলো স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

[বাংলা ট্রিবিউন]