ব্রণ হওয়ার অন্য কারণ

লাইফস্টাইল ডেস্কঃ
ত্বক পরিচর্যার পরেও ব্রণ হওয়ার কারণ হতে পারে বদভ্যাস।

রূপচর্চা-বিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদন অবলম্বনে ব্রণ হওয়ার অন্যান্য কারণগুলো এখানে দেওয়া হল।

মোবাইল ফোন: দিনে সবচেয়ে বেশি স্পর্শ করা হয় এই যন্ত্রকে। সারাদিনে বহন করেন এমন যে কোনো জিনিসের চেয়ে এতে বেশি ব্যাকটেরিয়া থাকে। মোবাইল বার বার স্পর্শ করা এবং হাত মুখের কাছাকাছি নেওয়ার কারণে মুখে লোমকূপ ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে।

এই সমস্যা এড়াতে নিয়মিত অ্যান্টিব্যাক্টেরিয়াল উপাদান দিয়ে মোবাইল পরিষ্কার রাখুন এবং ত্বকের সমস্যা এড়াতে ইয়ারফোন ব্যবহার করুন।

মেইকআপ ব্রাশ:
নিয়মিত মেইকআপ করে থাকলে তা নিয়মিত পরিষ্কার করুন। ব্যক্তিগত মেইকআপ ব্রাশ থেকে থাকলেও তা পরিষ্কার করা উচিত। এতে ব্যাকটেরিয়া, ময়লা ও তেল জমে থাকে। সপ্তাহে একবার মেইকআপ ব্রাশ পরিষ্কার করুন এবং সকালে ব্যবহারের আগে মেইকআপ তোলার ওয়াইপার দিয়ে পরিষ্কার করে নিন।

চুলের প্রসাধনী:
চুলে রকমারি প্রসাধনী ব্যবহার করে থাকলে একটু সাবধান হওয়া উচিত। ড্রাই শ্যাম্পু বা হেয়ার স্প্রে ব্যবহার করলেও তা ত্বকের সংস্পর্শে আসতে পারে। যার ফলে হতে পারে ব্রণ। তাই এসব পণ্য ব্যবহারের সময় মুখ ও গলা ঢেকে রাখা উচিত।

হাত:
মুখে বার বার হাতের স্পর্শ লাগলেও ব্রণ হতে পারে। যে কোনো কিছুই হাত দিয়ে স্পর্শ করা হয়। ফলে ব্যাকটেরিয়া হাতে লেগে থাকে। তাই যতটা সম্ভব মুখে কম হাত লাগাতে হবে এবং নিয়মিত হাত পরিষ্কার রাখার চেষ্টা করতে হবে।

বালিশের কাভার:
বিছানা ও বালিশের কাভার বদলাতে অনেকেই আলসেমি করেন। একটু ভেবে দেখেন, বালিশের কাভারে ঘাম, ময়লা ও তেল লেগে থাকে। এগুলো ত্বকের সংস্পর্শে এসে ব্রণ সৃষ্টি করে। তাই সপ্তাহে অন্তত একবার এগুলো পরিবর্তন করা উচিত।

সূত্রঃ বিডিনিউজ