মেয়ের জন্য দুধ চুরি: সেই বাবাকে চাকরি দিল স্বপ্ন

অনলাইন ডেস্কঃ
ছোট্ট মেয়ের জন্য সুপারশপ স্বপ্ন থেকে দুধ চুরির চেষ্টা করে ধরা পড়া যে যুবককে নিয়ে ফেইসবুকে আলোচনা চলছে তাকে চাকরি দিল স্বপ্ন কর্তৃপক্ষ।

এইচএসসি পাস ওই ব্যক্তিকে ‘সোর্সিং এক্সিকিউটিভ জেনারেল মার্চেন্ডাইজ’ হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে বলে ‘স্বপ্ন’-এর হেড অব মার্কেটিং তানিম করিম জানিয়েছেন।

তিনি বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, পুলিশের খিলগাঁও জোনের সহকারী কমিশনার জাহিদুল ইসলাম সোহাগের মাধ্যমে শনিবার ওই যুবকের পরিচয় নিশ্চিত করা হয় এবং রোববার তার হাতে নিয়োগপত্র তুলে দেন ‘স্বপ্ন’র নির্বাহী পরিচালক সাব্বির নাসির।

চুরির ঘটনাটি ঘটে শুক্রবার রাতে খিলগাঁওয়ের শহীদ বাকি রোড এলাকায়। হঠাৎ এক ব্যক্তিকে ঘিরে হট্টগোল দেখে সেখানে এগিয়ে যান পুলিশ কর্মকর্তা সোহাগ। উপস্থিত লোকজনের কাছে তিনি জানতে পারেন, সুপারশপ স্বপ্ন থেকে ‘নান’ দুধের একটি কৌটা নিয়ে সটকে পড়ছিলেন ওই ব্যক্তি। তাকে ধরে ফেলেন স্বপ্নের নিরাপত্তা কর্মীরা।

জিজ্ঞাসাবাদে ওই ব্যক্তি যখন তার বেকারত্ব ও শিশু সন্তানের জন্য দুধ সংগ্রহে এই চেষ্টার কথা জানান, তখন নিজের পকেট থেকে টাকাটা দিয়ে দেন এএসপি সোহাগ। দুধ নিয়ে বাসায় চলে যান ওই ব্যক্তি।

পরে এই ঘটনা তুলে ধরে সোহাগ ফেইসবুকে পোস্ট দেওয়ার পর তা ভাইরাল হয়। বিষয়টিকে মানবিক দৃষ্টিভঙ্গিতে দেখে এগিয়ে আসে স্বপ্ন কর্তৃপক্ষও। তারা ওই ব্যক্তি চাকরি দেওয়ার ঘোষণা দেয়।

পরে তার ঠিকানা সংগ্রহ করে ওই যুবকের কথার সত্যতা যাচাই করে পুলিশ। এরপর রোববার হল তার এই চাকরির ব্যবস্থা।

সহকারী কমিশনার জাহিদুল ইসলাম সোহাগ বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, আপাতত ২০ হাজার টাকা বেতন ধরা হয়েছে তার। দক্ষতা দেখাতে পারলে বেতন বাড়ানোর আশ্বাস দিয়েছে স্বপ্ন কর্তৃপক্ষ।

তিনি বলেন, “ওই যুবকেরর ১১ মাস বয়সী একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। ছয় মাস ধরে বেকার ওই যুবক নিরুপায় হয়ে স্বপ্নতে দুধ চুরি করতে গিয়ে ধরা পড়েছিল।

“সে বিদেশও গিয়েছিল। কিন্তু প্রতারিত হয়ে ফিরতে হয়েছে।”

সূত্রঃ বিডিনিউজ