কারামুক্ত সাংবাদিক শত্তকত মাহমুদ ও কলামিষ্ট গোলাম মাওলা রনির সাথে সৌজন্য সাক্ষাতে হোবাইব

প্রেস বিজ্ঞপ্তি:
সদ্য কারামুক্ত সাংবাদিক নেতা জাতীয় প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা শত্তকত মাহমুদের সাথে ২৭ জুন, সোমবার দুপুরে ও ২৮ জুন মঙ্গলবার দুপুরে সাবেক সাংসদ বর্তমান সময়ের আলোচিত কলামিষ্ট গোলাম মাওলা রনির সাথে কক্সবাজার জেলা উপকূলীয় সাংবাদিক ফোরামের সাধারণ সম্পাদক এ.এম হোবাইব সজীব সৌজন্য সাক্ষাতে মিলিত হন।

এসময় সাংবাদিক শত্তকত মাহমুদ বলেন, দেশের ভীতিময় পরিস্থিতিতে সৎ সাহসী সাংবাদিকতার পরিবেশ খুব একটা নেই। তবুও উপকূলীয় সাংবাদিক ফোরামের নেতারা তথ্যবহুল সংবাদ প্রকাশের মাধ্যমে উপকূল ছাড়িয়ে দেশময় ছাড়িয়ে পড়বে বলে এটা প্রত্যাশা করি।

সাবেক সংসদ সদস্য এবং সময়ের আলোচিত কলামিস্ট গোলাম মাওলা রনি এক প্রতিক্রিয়ায় বলেন, সংবাদপত্র সমাজের দর্পন, সাংবাদিকরা জাতির বিবেক। সংবাদপত্র রাষ্ট্রের চতুর্থ স্তম্ভ। অর্থাৎ বিচার, আইন এবং শাসন বিভাগের পরেই সংবাদপত্রের অবস্থান। রাষ্ট্রের তিনটি বিভাগের মতই সংবাদপত্র এবং সাংবাদিকদের মধ্যকার সম্পর্ক সুগভীর।

Hobib-1
সাংবাদিক শত্তকত মাহমুকে স্মারক তুলে দিচ্ছেন সাংবাদিক হোবাইব

তিনি আরো বলেন, কেউ সাংবাদিক হয়ে জন্ম নেয় না, তৈরি হয়। দেশের বর্তমান উদ্বেগজনক পরিস্থিতিতে সৎ, সাহসী ও অনুসন্ধানী সাংবাদিকতার অভাব প্রকট। পরিবেশও এঁদের প্রতিকূলে। তা সত্ত্বেও কক্সবাজার জেলার উপকূলীয় সাংবাদিকরা হাজারো চ্যালেঞ্জ অতিক্রম করে সত্য এবং বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ প্রকাশ অব্যাহত রেখেছেন, যা কক্সবাজারের সংবাদপত্রের জগৎকে সমৃদ্ধ করবে বলে আমি মনে করি।

উল্লেখ্য, কক্সবাজারের ৮টি উপজেলার এক ঝাঁক অদম্য সাহসী সংবাদকর্মীদের সমন্বয়ে গঠিত উপকূলীয় সাংবাদিক ফোরামের অগ্রযাত্রার ৬ বছর পদার্পন করতে যাচ্ছে। এই উপলক্ষে সংগঠনটির পক্ষে সাধারণ সম্পাদক সাহসী সাংবাদিক এ.এম হোবাইব সজীব ঢাকায় সাংবাদিক ইউনিয়নের কার্যালয়ে শত্তকত মাহমুদ ও রনির নিজস্ব কার্যালয়ে সৌজন্য সাক্ষাত করতে যান।

এই সময় তিনি সংগঠনটির গত বছরের প্রকাশিত উপকূল নামক স্মারক শত্তকত মাহমুদ, গোলাম মাওলা রনির হাতে তুলে দেন।

উভয়ের মধ্যকার দীর্ঘক্ষণ আলোচনায় সংগঠনের আগামী আগষ্টে বর্ষ পূর্তি উপলক্ষে প্রকাশিতব্য ‘উপকূল’ নামক স্মারক সংখ্যায় শকত্তত মাহমুদ এবং গোলাম মাওলা রনি একটি করে কলাম লেখারও প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন এবং তারা দুই জনই সাংবাদিক হোবাইবকে বিভিন্ন কাজে সহযোগিতা করার আশ্বস্থ করেছেন।