হাঁপানি কেন হয়

লাইফস্টাইল ডেস্কঃ
হাঁপানি একটি শ্বাসকষ্টজনিত রোগ। এটি নিরাময়যোগ্য নয়; কিন্তু সঠিকভাবে নিয়ম মেনে ও ওষুধ খেলে সহজেই এ রোগ নিয়ন্ত্রণে রাখা সম্ভব। এ ক্ষেত্রে রোগীকে সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে।

সাধারণত তাপমাত্রা পরিবর্তন, ভাইরাসজনিত শ্বাসনালির রোগ, ধুলোবালি, পরিশ্রম ইত্যাদি কারণে হঠাৎ হাঁপানিজনিত শ্বাসকষ্ট ও কাশি বেড়ে যেতে পারে। এসব ক্ষেত্রে ইনহেলার বারবার নিয়ে বা নেবুলাইজেশনের মাধ্যমে স্যালবিটামল নিয়ে বাসায় শ্বাসকষ্ট কমানো যেতে পারে। অনেক সময় হাঁপানির তীব্রতা বেড়ে শ্বাসযন্ত্রের কার্যকারিতা বন্ধ হয়ে যেতে পারে। তখন রোগীকে কৃত্রিম শ্বাস-প্রশ্বাসের ব্যবস্থা নিতে হয়।

তীব্র হাঁপানি হলে বা হাঁপানির জন্য তীব্র কাশি হলে অনেক সময় অ্যালভিওলাই ফেটে যেতে পারে। এর ফলে ফুসফুস ও বুকের মাঝখানের ফাঁকা জায়গায় বাতাস জমে নিউমোথোরাক্স অথবা দুই ফুসফুসের মাঝের জায়গায় বাতাস জমে নিয়মোমেডিয়াস্টিনাম হতে পারে। এসব ক্ষেত্রে রোগীর শল্য চিকিৎসা প্রয়োজন হতে পারে।

ছত্রাকজনিত কারণে হাঁপানি রোগীর কফের সঙ্গে প্রচুর শ্লেষ্মা যায়। এ অবস্থায় রোগীর হাঁপানির তীব্রতা বেড়ে যায় এবং মাঝে মধ্যে কাশির সঙ্গে রক্ত যায়। তাই এ ধরনের সমস্যা হলে সঙ্গে সঙ্গে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী ওষুধ সেবন করুন, ভালো থাকুন।