কক্সবাজারে বেতার শিল্পীদের মিলন মেলায় ওস্তাদ মিহির লালা- একমাত্র অনুশীলনের মধ্যদিয়েই সংগীতকে জয় করা যায়

প্রেস বিজ্ঞপ্তিঃ
সংগীত হচ্ছে সাধনার বিষয়। সংগীতে ভাল করতে হলে সমস্ত কাজের ফাঁকে সময় দিয়ে সংগীতের সাধনা করতে হবে। একমাত্র অনুশীলনের মধ্যদিয়েই সংগীতকে জয় করা যায় । পুরুস্কার কখনো সংগীতের মানদন্ড হতে পারেনা।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য ‍দিচ্ছেন ওস্তাদ মিহির লালা।

গতকাল শনিবার (৯মার্চ) কক্সবাজার সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে আয়োজিত কক্সবাজার বেতার শিল্পী সমন্বয় পরিষদের শিল্পীদের মিলন মেলায় চট্টগ্রাম আর্য্য সংগীতের অধ্যক্ষ ও বিশিষ্ট সংগীতজ্ঞ ওস্তাদ মিহির লালা এসব কথা বলেন।

ওস্তাদ মিহিল লালা আরো বলেন, বেতারে গান গাওয়া,টেলিভিশনের গান গাওয়া কোন বিষয়ই না। আপনার যদি কোয়ালিটি থাকে আপনাকে তারা খোঁজে নেবে। তাদের স্টেশনকে সমৃদ্ধ করার জন্য,তাদের প্রয়োজনেই আপনাকে তারা ডেকে নেবে।
তাই আমার অনুরোধ আপনারা নিজেদেরকে আগে তৈরী করুন। এর বিকল্প নেই।

বেতার শিল্পী সমন্বয় পরিষদের সভাপতি অধ্যাপক রায়হান উদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন,কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এড. সিরাজুল মোস্তফা,.বিশিষ্ট সংগীত শিল্পী জয়ন্তী লালা।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে সংগঠনের সহ-সভাপতি বিশিষ্ট আবৃত্তিকার জসীম বকুল,সহসভাপতি ও বেতারের সংগীত প্রযোজক বশিরুল ইসলাম,সাধারণ সম্পাদক ও বেতারের নাট্য প্রযোজক স্বপন ভট্টাচার্য্ বক্তব্য দেন।

অনুষ্ঠানে সংগীত পরিবেশন করছেন বিশিষ্ট শিল্পী জয়ন্তী লালা।

অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন পরেশ কান্তি দে ও অধ্যাপক নীলোৎপল বড়ুয়া।

সংগীতানুষ্ঠানের শুরুতেই সুরের জালে মোহাবিষ্ট করেন বিশিষ্ট সংগীত শিল্পী জয়ন্তী লালা। তিনি শুরু করেন নজরুলেই সেই বিখ্যাত ‘গান আমায় নহে গো, গানটি দিয়ে। এছাড়াও সংগীত পরিবেশন করেন বিশিষ্ট শিল্পী রায়হান উদ্দিন,প্রবীর বড়ুয়া,বশিরুল ইসলাম, আলম শাহ,সন্তোষ কুমার সুশীল, সাজু, তালেব মাহমুদ, টুইংকেল,জাফর আলম আজাদ,সমীর শীল,ফরমান রেজা,মো. হাসান,আবুল কাশেম,ঈশিকা,ঈপশিতা, প্রমি,সাজিদ ও রাজস্বীসহ বেতারের শিল্পীরা। অনুষ্ঠানের সবশেষে ছিলো আকর্ষনীয় র‌্যাফেল ড্র-র আয়োজন।