ভালোবাসা দিবসে সৈকতে পর্যটকের মেলা

অনলাইন ডেস্কঃ
১৪ ফেব্রুয়ারি বিশ্ব ভালোবাসা দিবস। ভালোবাসা দিবসকে ঘিরে কক্সবাজার সৈকতে লাখো পর্যটকদের সমাগম ঘটেছে। আজ অতিরিক্ত আরও ৫০ হাজার পর্যটক আসবেন। শহরের চার শতাধিক হোটেল–মোটেলে কোনো কক্ষ খালি নেই। অথচ শহরের হোটেল-মোটেল কিংবা উন্মুক্ত সৈকতে ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে হচ্ছে না কোনো অনুষ্ঠান।

গতকাল বুধবার বিকেলে সৈকতের লাবনী পয়েন্টে গিয়ে দেখা গেছে হাজার হাজার পর্যটকদের মেলা। ঢাকার উত্তরা থেকে সৈকত ভ্রমণে আসেন ব্যবসায়ী আবদুল কাদের। তিন মাস আগে তাঁর বিয়ে হয়েছে। এখানে এসে দারুণ উপভোগ করছেন। ভালোবাসা দিবসের অনুষ্ঠান থাকলে আরও ভালো লাগত তাঁর।

ট্যুর অপারেটর অ্যাসোসিয়েশন কক্সবাজার (টুয়াক) সভাপতি তোফায়েল আহমেদ বলেন, বিশ্ব ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে গতকাল বুধবার সন্ধ্যা পর্যন্ত কক্সবাজারে অবস্থান করছেন অন্তত আড়াই লাখ পর্যটক। আজ ১৪ ফেব্রুয়ারি বিশ্ব ভালোবাসা দিবসে আসবেন আরও অন্তত ৫০ হাজার পর্যটক। সব মিলিয়ে ভালোবাসা দিবসে সৈকতে তিন লাখের মতো পর্যটকের সমাগম ঘটবে। এটা বড় উপলক্ষ। অথচ বিনোদনের তেমন কিছু নেই দেখে হতাশ পর্যটকেরা।

ট্যুরিস্ট পুলিশ কক্সবাজারের পুলিশ সুপার মো. জিললুর রহমান বলেন, ভালোবাসা দিবসে সৈকতে তিন লাখ পর্যটকের সমাগম ঘটবে। পর্যটকদের জন্য বাড়তি নিরাপত্তা নিয়েছে ট্যুরিস্ট পুলিশ।