গলায় সাপ পেঁচিয়ে জেরার ভিডিও ভাইরাল, ক্ষমা চাইল পুলিশ

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ
ইন্দোনেশিয়ায় মোবাইলি চুরির সন্দেহে আটক এক ব্যক্তিকে জেরার সময় তার গলায় সাপ পেঁচিয়ে ভয় দেখানোর ভিডিও অনলাইনে ছড়িয়ে পড়ার পর এ কাণ্ডের জন্য পুলিশ ক্ষমা চেয়েছে।

পূর্বাঞ্চলীয় পাপুয়া অঞ্চলে ওই ঘটনার ভিডিওতে পুলিশ কর্মকর্তাদেরকে হাতকড়া পরানো ভীত-সন্ত্রস্ত ওইব্যক্তির মুখ এবং প্যান্টের মধ্যে সাপ ঢুকিয়ে দেওয়ার ভয় দেখাতেও দেখা গেছে। এমনকী এমন অমানবিক অচরণ করার সময় কর্মকর্তারা হাসছিলেন।

স্থানীয় পুলিশ প্রধান এ ঘটনাকে চরম অপেশাদার আচরণ বলে বর্ণনা করেছেন। তবে একই সঙ্গে তিনি তার অধস্তন কর্মকর্তাদের সফাই গেয়ে বলেন, ওই সাপটি পালিত এবং বিষহীন।

“ওই কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। তবে তারা ওই ব্যক্তিকে সাপের কামড় খাওয়াত না। কর্মকর্তারা নিজেদের মত করে সন্দেহভাজন ওই ব্যক্তির স্বীকারোক্তি আদায় করার চেষ্টা করছিলেন।”

মানবাধিকার আইনজীবী ভেরোনিকা কোমান টুইটারে ওই ভিডিও পোস্ট করে দাবি করেন, পুলিশ সম্প্রতি ‘পাপুয়ার স্বাধীনতার পক্ষে আন্দোলনকারী এক বিচ্ছিন্নতাবাদীকে কারাগারে সাপের’ সঙ্গে রেখেছে।

ইন্দোনেশিয়া থেকে স্বাধীনতার দাবিতে পাপুয়ায় কয়েকটি বিচ্ছিন্নতাবাদী দল আন্দোলন করছে। ওই সব দলের কর্মীদের প্রায়ই পুলিশি নির্যাতনের শিকার হতে হয়। যা মানবতা বিরোধী অপরাধের পর্যায়ে পড়ে বলে মত অনেকের।