রামুর দক্ষিণ মিঠাছড়িতে বসত বাড়িতে দূর্ধর্ষ ডাকাতি:গুলিবিদ্ধসহ আহত ৩

 সোয়েব সাঈদ:

রামু রামু উপজেলার দক্ষিণ মিঠাছড়ি ইউনিয়নের কাজীরপাড়া এলাকায় বসত বাড়িতে দূর্ধর্ষ ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। ডাকাতের গুলিতে একজন গুলিবিদ্ধসহ ২ জন আহত হয়েছেন। ডাকাতদল ওই বাড়ি থেকে আট লাখ টাকার মালামাল লুট করেছে। বৃহস্পতিবার, ২ জুন দিবাগত রাত তিনটায় দক্ষিণ মিঠাছড়ি ইউপি চেয়ারম্যান সাইফুল আলমের জেঠাতো ভাই হাজ্বী হোসনুজ্জামানের বাড়িতে এ ডাকাতির ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় গুলিবিদ্ধ আজিজুর রহমানকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গৃহকর্তা হাজ্বী হোসনুজ্জামান জানিয়েছেন, রাত সাড়ে তিনটায় মুখোশ পরা ডাকাতদল জানালার গ্রিল কেটে বাড়িতে প্রবেশ করে বিভিন্ন কক্ষে লুটপাট চালাতে থাকে। লুটপাটকালে ডাকাতদল তার ছেলে আজিজুর রহমানকে লক্ষ্য করে গুলি করে। এতে আজিজুর রহমান গুরুতর আহত হন।

এছাড়াও ডাকাতদল তার অপর ছেলে জিয়াউর রহমানকে পিটে ছুরিকাহত করে। ডাকাতদল বাড়ির আসবাবপত্র তছনচ করে ৩ লাখ টাকা, ৮ ভরি স্বর্ণের অলংকার, ৪টি মোবাইল ফোন সেট সহ গুরুত্বপূর্ণ মালামাল লুট করে। গৃহকর্তা হাজ্বী হোসনুজ্জামান ডাকাতির এ ঘটনায় তার ৮ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি করেছেন।

দক্ষিণ মিঠাছড়ি ইউপি চেয়ারম্যান সাইফুল আলম ডাকাতির বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ডাকাতরা বাড়ির সদস্যদের গুলি করে এবং কুপিয়ে স্বর্ণালংকার, নগদ টাকা সহ ব্যাপক লুটপাট চালিয়েছে। তিনি এ ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতার করে এলাকাটিকে ডাকাতমুক্ত করার জন্য পুলিশ প্রশাসনের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন।

শুক্রবার, ৩জুন সকালে রামু থানার এসআই খায়ের ঘটনাস্থলে যান। তিনি এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান।

এদিকে স্থানীয় বাসিন্দা মোহাম্মদ আবদুল আজিজ জানিয়েছেন, রাতে চমেক হাসপাতালে গুলিবিদ্ধ আজিজুর রহমানের দেহে অপরারেশনের মাধ্যমে ৩টি গুলি বের করেছেন চিকিৎসকেরা। এ ঘটনার পর থেকে এলাকাজুড়ে ডাকাত আতংক বিরাজ করছে।