শিশুর শারীরিক বিকাশে ডিম

লাইফস্টাইল ডেস্কঃ
সঠিকভাবে বেড়ে উঠতে শিশুর জন্য প্রতিদিনই একটি ডিম যথেষ্ট হতে পারে।

গবেষণায় দেখা গেছে, প্রতিদিন একটি ডিম শিশুর বিকাশ উল্লেখযোগ্য হারে বাড়াতে পারে। এবং ৪৭ শতাংশ পর্যন্ত বিকাশ ব্যহত হওয়া আশঙ্কা কমায়।

গবেষণার প্রধান লেখক, সেইন্ট লুইস’য়ের ওয়াশিংটন ইউনিভার্সিটির লোরা ইয়ানাটি বলেন, “ডিম দামে সস্তা এবং সহজলভ্য। বাড়ন্ত শিশুদের বৃদ্ধি ও বিকাশের জন্য প্রয়োজনীয় পুষ্টি উপাদানের একটি দারুণ উৎস হতে পারে এটি। পাশাপাশি বিশ্বব্যাপি শিশুদের বিকাশের নিম্নহারের সঙ্গে লড়াই করার একটি উৎকৃষ্ট হাতিয়ার হওয়ার যোগ্যতা আছে ডিমের।”

‘পেডিয়াট্রিকস’ জার্নালে প্রকাশিত এই গবেষণায় দেখা যায়, যেসব শিশুর প্রতিদিন একটি করে ডিম খাওয়ানো হয়েছে তাদের বিকাশ ব্যাহত হওয়ার হার কমেছে ৪৭ শতাংশ আর অপুষ্টিতে ভোগার ঝুঁকি কমেছে ৭৪ শতাংশ।

গবেষণার জন্য ছয় থেকে নয় মাস বয়সি শিশুদের বেছে নেন গবেষকরা। এদের একদলকে ছয় মাস ধরে প্রতিদিন একটি করে ডিম খাওয়ানো হয় আর অপর দলকে ডিম খাওয়া থেকে বিরত রাখা হয়।

ইয়ানাটি বলেন, “ডিম একটি পরিপূর্ণ খাবার, নিরাপদ এবং অন্যান্য খাবারের তুলনায় অধিকাংশ দরিদ্রদের নাগালের মধ্যে।”

“তাই উন্নয়নশীল দেশগুলোতে শিশুর জন্য একটি উৎকৃষ্ট পুষ্টি উপাদানের উৎস হতে পারে ডিম।” বলেন ইয়ানাটি।