রোমাঞ্চকর লড়াইয়ে ক্রোয়েশিয়াকে হারিয়ে সেমিতে ইংল্যান্ড

ক্রীড়া ডেস্কঃ
প্রথমার্ধে একচেটিয়া আক্রমণ করেও ক্রোয়েশিয়ার গোলরক্ষক লোভরে কালিনিচের দেয়াল ভাঙতে পারেনি ইংল্যান্ড। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে উল্টো গোল খেয়ে অবনমনের শঙ্কায় পড়েছিল তারা। তবে শেষ দিকে দুর্দান্তভাবে ঘুরে দাঁড়িয়ে পাওয়া রোমাঞ্চকর জয়ে উয়েফা নেশন্স লিগের সেমি-ফাইনালে উঠেছে গ্যারেথ সাউথগেটের দল।

লন্ডনের ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামে রোববার স্থানীয় সময় দুপুরে ‘এ’ লিগের গ্রুপ-৪ এর ম্যাচটি ২-১ গোলে জেতে ইংল্যান্ড। আনদ্রেই ক্রামারিচের গোলে পিছিয়ে পড়ার পর জেসি লিনগার্ডের গোলে সমতায় ফেরে দলটি। শেষে জয়সূচক গোলটি করেন কেইন।

রাশিয়া বিশ্বকাপের সেমি-ফাইনালে এই ব্যবধানেই ক্রোয়েশিয়ার কাছে হেরেছিল ইংলিশরা। প্রতিশোধ নেওয়া জয়ে নিজেদের গ্রুপে চ্যাম্পিয়ন হলো তারা। আর এই হারে ‘বি’ লিগে অবনমন হয়ে গেল ক্রোয়াটদের।

ম্যাচের শুরু থেকে একচেটিয়া বল দখলে রাখা ইংল্যান্ড একাদশ মিনিটে প্রথম সুযোগ পায়। ডান দিক দিয়ে ডি-বক্সে ঢুকে রাহিম স্টার্লিংয়ের শট ঝাঁপিয়ে কর্নারের বিনিময়ে ঠেকান গোলরক্ষক কালিনিচ।

কিছুক্ষণ পর কেইনের নেওয়া শট গোললাইন থেকে ফেরান ডিফেন্ডার তিন ইয়াদভাই। বল ফের চলে যায় কেইনের পায়ে। টটেনহ্যাম হটস্পার ফরোয়ার্ডের দ্বিতীয় শট ছুটে এসে কর্নারের বিনিময়ে ঠেকান কালিনিচ। ২৬তম মিনিটে ডি-বক্সের বাইরে থেকে বেন চিলওয়েলের দূরের পোস্টে নেওয়া শট ঝাঁপিয়ে ঠেকিয়ে ফের দলকে বাঁচান তিনি।

দ্বিতীয়ার্ধেও একইভাবে প্রতিপক্ষের রক্ষণে চাপ ধরে রাখে ইংল্যান্ড। তবে খেলার ধারার বিপরীতে ৫৭তম মিনিটে ওয়েম্বলিকে স্তব্ধ করে এগিয়ে যায় ক্রোয়াটরা।

দারুণ এক পাল্টা আক্রমণে সতীর্থের কাটব্যাক ডি-বক্সে মাঝ বরাবর পেয়ে ঘিরে থাকা ডিফেন্ডারদের কাটিয়ে শট নেন ক্রামারিচ। সামনে থাকা মিডফিল্ডার এরিক ডায়ারের পায়ে লেগে সামান্য দিক পাল্টে বল জালে জড়ায়।

৭৩তম মিনিটে ডেলফেকে বসিয়ে লিনগার্ডকে নামান কোচ। মাঠে নামার পাঁচ মিনিট পরেই দলকে সমতায় ফেরান তিনি। সতীর্থের হেডে বল পেয়ে ঠিকমতো শট নিতে পারেননি কেইন। গোলরক্ষকের পায়ে লেগে বল চলে যায় গোলমুখে, ছুটে এসে আলতো টোকায় লক্ষ্যভেদ করেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের মিডফিল্ডার।

১-১ ড্রয়ে ম্যাচ শেষ হলে ‘বি’ লিগে নেমে যেত ইংল্যান্ড। তবে সমতায় ফিরে উজ্জীবিত দলটি ৮৫তম মিনিটে পেয়ে যায় দ্বিতীয় গোল। বাঁ দিকের সাইডলাইনের কাছ থেকে চিলওয়েলের নেওয়া ফ্রি-কিকে বল ছোট ডি-বক্সের মুখে পেয়ে শুয়ে পড়ে নেওয়া শটে ঠিকানায় পাঠান কেইন। উল্লাসে ফেটে পড়ে ওয়েম্বলি।

চার ম্যাচে দুই জয় ও এক ড্রয়ে ৭ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপে সবার উপরে ইংল্যান্ড। দুই জয়ে ৬ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছে স্পেন। আর অবনমন হওয়া ক্রোয়েশিয়ার পয়েন্ট ৪।

‘এ’ লিগের চার গ্রুপের সেরা চার দল নিয়ে আগামী বছর জুনে হবে টুর্নামেন্টের শিরোপা লড়াই। গ্রুপ-৩ থেকে আগেই শেষ চার নিশ্চিত করেছে পর্তুগাল।