আশা আছে, তবে তাড়া নেই সাকিবের

ক্রীড়া ডেস্কঃ
মিরপুর টেস্টের শেষ সেশনের খেলা চলছে তখন। সাকিব আল হাসানকে দেখা গেল মাঠের বাউন্ডারি সীমানার বাইরে দিয়ে ইনডোরের দিকে যেতে। ইনডোর লাগোয়া নেটে ব্যাটিং করলেন বেশ কিছুক্ষণ। দিনের খেলা শেষে রানিং করলেন মাঠে। সবই জানান দিচ্ছে, ফেরার সময় হলো বলে। পরে আশার কথা শোনালেন সাকিব নিজেও, যদিও তাড়াহুড়ো করতে চান না মাঠে ফেরা নিয়ে।

চোট কাটিয়ে ফেরার লড়াইয়ে থাকা সাকিব এ দিনই প্রথম ব্যাট করলেন নেটে। যদিও পুরোদমে নেট সেশন নয়, ব্যাট করেছেন নাজমুল ইসলাম অপু, বোলিং কোচ সুনীর যোশির স্পিনে। পরে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে সাকিব জানালেন, প্রথম দিনের ব্যাটিংয়ে কোনো সমস্যা অনুভব করেননি।

“মাত্রই প্রথম ব্যাটিং করলাম। স্পিন দিয়ে আস্তে আস্তে শুরু করলাম। প্রথম দিন হিসেবে ভালোই মনে হলো। ব্যথাটা সেভাবে বোঝা যায়নি। সামনে যখন পেস বাড়বে, ভলিউম বাড়বে, তখন বোঝা যাবে। এভাবে এগোতে থাকি, দেখা যাক কী অবস্থা হয়। প্রথম দিন হিসেবে আমি বলব, অনেক ভালো।”

সাকিব যেদিন নেটে ফিরলেন, সেদিনই ঢাকায় পা রেখেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের প্রথম ভাগের সদস্যরা। আগামী ২২ নভেম্বর শুরু দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ। টেস্ট অধিনায়ককে কি এই সিরিজে ফিরে পাবে বাংলাদেশ? সাকিবের কথায় সম্ভাবনা-অনিশ্চয়তা দুটিই আছে।

“সবই আস্তে আস্তে শুরু হবে। কাল-পরশু থেকে হয়তো ফিল্ডিং ও বোলিং শুরু করব। সব কিছুর জন্য সময় লাগবে। একবারেই সব শুরু করা সম্ভব হবে না। উন্নতি হতে থাকলে ম্যাচ খেলার কথা চিন্তা করবো।”

“ভালো ব্যাপার হলো যে ব্যথা অনুভব করিনি। বেশ ভালো অনুভব করেছি। এরপর পেস বাড়ার পর বুঝতে পারবো কী হচ্ছে। জলদি করা যাবে না। এটা হলো প্রথম কথা। কয়েক দিনের ভেতরে বুঝতে পারব, কী হবে।”