রামুতে নির্বাচনী প্রচারণায় শিশুরা!

স্টাফ রিপোর্টার,
আমাদের রামু ডটকম :
কক্সবাজারের রামু উপজেলায় আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) নির্বাচনী প্রচারণা জমে উঠেছে। নির্বাচনের প্রচারণায় শিশুরাও যুক্ত হয়েছে। তাঁরা বিভিন্ন প্রার্থীর পক্ষে গ্রামে গ্রামে মিছিল করছে। তাঁদের মিছিল ভোটারদের কাছে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। এখানে পঞ্চম দফায় ২৮ মে পাঁচটি ইউপিতে নির্বাচন হবে।

কয়েকজন ভোটারের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, এবারের নির্বাচনে প্রার্থীদের চোখে ঘুম নেই। তাঁরা দিনরাত গ্রামগঞ্জে ছুটে বেড়াচ্ছেন। কর্মীরাও ভোটারদের কাছে বিভিন্ন কৌশলে প্রচারণা চালাচ্ছেন। মুড়ি, বিস্কুট ও টাকা নিয়ে শিশুরা বিভিন্ন প্রার্থীর হয়ে সকাল-বিকেল মিছিল করছে।

রোববার বিকেলে গর্জনিয়া ইউনিয়নের মিয়াজিরপাড়া গ্রামে গিয়ে দেখা যায়, ১০-১৫ জনের একদল শিশু হাতে হ্যান্ডবিল, পোস্টার নিয়ে ইউনিয়নের ৭, ৮ ও ৯ নম্বর ওয়ার্ডের সংরক্ষিত আসনের (নারী) পদপ্রার্থী আয়েশা খানম চৌধুরাণী লুচির (সূর্যমুখী) পক্ষে ‘একটা ভোটের মূল্য আছে, ভোট দিবেন না মাইক ও বক প্রতীকে। লুচি আপা ভালো লোক, জয়ের মালা তাঁরে হোক, লুচি আপার চরিত্র ফুলের মতো পবিত্র, আল্লাহ তুমি রহম কর সূর্যমূখী ফুলকে জয় কর’সহ নানা গ্লোগান দিয়ে বিভিন্ন অঙ্গভঙ্গির মাধ্যমে মিছিল করছে।

ওই মিছিলে অংশ নেওয়া ১০ বছরের শিশু মোহাম্মদ রিদুয়ান বলেন, এখানে লুচি আপার সূর্যমূখী ফুলের জনপ্রিয়তা আছে। তাই আমরা নিজেদের উদ্যোগে উনার জন্য মিছিল করছি। বিনিময়ে বিস্কুট ও কিছু টাকা পাব।

সোমবার, ২৩মে সকালে একই ইউনিয়নের পূর্ব বোমাংখিল গ্রামে দেখা যায়, আরেক দল শিশু মিছিলের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে। এ সময় নয় বছরের শিশু ফয়সাল বলে, ‘এখন কথা বলার সময় নেই’ বর্তমান চেয়ারম্যান তৈয়ব উল্লাহ চৌধুরীর পক্ষে নৌকা মার্কার মিছিল করার জন্য আমরা চকলেট খেয়েছি। উনি খুবই ভালো লোক তাই উনার পক্ষে আমরা কাজ করছি।

একই দিন সন্ধ্যা ৭টায় মাঝিরকাটা গ্রামে সতন্ত্র প্রার্থী সৈয়দ নজরুল ইসলামের পক্ষে আনারস মার্কার মিছিল করে একদল শিশু। মিছিলের বিনিময়ে তাঁরা ৫০টাকা করে পেয়েছে।

জানতে চাইলে গর্জনিয়ার ৫নং ওয়ার্ডের সাধারণ আসনের পদপ্রার্থী মোহাম্মদ মহিউদ্দিন (ফুটবল) আমাদের রামু ডটকমকে বলেন, শিশুরা নিজ ইচ্ছায় মিছিল নিয়া আসলে তাদের চা-মুড়ি খাওয়ার জন্য কিছু টাকা দেওয়া হয়।

তাছাড়া ওদের মিছিল ভোটারদের ভালোই লাগে। নির্বাচনে শুধু ভোটারদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে বললে চলে না। মাঠ গরম রাখার জন্য মিছিল হলে ভালো হয়।