ভুলোমনা

নঈম আল ইস্পাহান:

সেদিন অনার্সের ওরিয়েন্টেসন ক্লাস ছিল।খুব উত্তেজিত ছিলাম।কী না কী হয়।সব ছাত্র-ছাত্রী ছিল অচেনা।যাদের সাথে নতুনভাবে বন্ধুত্ব পাতাতে হবে।এছাড়া উপায় ও নেই।কেননা,বন্ধু ছাড়া লাইফ “নেভার পসিবল” ছেলেদের সাথে পরিচিত হচ্ছিলাম।মেয়েদের সাথে পরিচিত হবো সেই দুঃসাহস আমার ছিলনা।কিন্তু,একটি মেয়ের সাথে বার,বার পরিচিত হতে মন চাইছিলো।কেনই বা হবেনা।হিন্দি সিনেমার নায়িকাদের মত যার রুপ।যার স্টাইল বলিউড কুইন কারিনাকে হার মানায়।যার চালচলন কোন বিশ্বসুন্দরীর যাম্পে হাঁটার মতন।যাকে দেখে কালবৈশাখী ঝড় থমকে দাঁড়াবে তার ধবংসাত্বক অভিযান থেকে।

এ কেমন মেয়ে সে? নাকি আকাশ থেকে হুট করে নেমে পরা ডানাকাটা পরী? সে আমার মনে দাগ কেটেছিলো মুগ্ধতার।তার রুপ,স্টাইল,হাসি,ভিন্ন ধারার মেকাপ আমাকে এক নেশার ঘোরে আবদ্ধ করে ফেলেছিলো। দিন যায়,রাত আসে।রাত যায়,দিন আসে।আমার ভালোবাসা পালাক্রমে বাড়তে থাকলো।অনেক ভালোবাসি তাকে।আমার মনের সবটুকু উড়াজ করে ভালোবাসি।কিন্তু,তার সামনে যেতে পারিনা।

অদ্ভুদ এক কনফিডেন্সহীনতাই ভুগি।আমি তার যোগ্য তো?নাকি,আমার মত ছেলেকে সে পাত্তা দিবেনা! ভালোবাসা কালো,ধলো মানেনা।ভালোবাসা অন্ধ।সে কী চোখখোলা রেখে বিবেচনা করবে আমাকে?তাহলে নিশ্চয়ই আমি কালো বলে এড়িয়ে যাবে।না,সে এমন হতে পারেনা।তাকে দেখলে মনে হয় তার মনটা মাদার তেরেসার মত।ফ্লোরেন্স নাইটিংঙ্গেলের মত উদারমনা সে।বাংলা নাটকের সবচেয়ে সুইট মেয়ে সাবিলা নূরের মত যার মিষ্টি হাসি।সে নির্দয় হতে পারেনা।সে আমাকে কিছুতেই ফিরিয়ে দিবেনা।আমি “আই লাভ ইউ” বললে সে ও আমাকে বলবে “আই লাভ ইউ টু” মকবুল!

ভার্সিটি বন্ধ,মাসখানেক হলো।তাকে দেখতে মনটা কেমন জানি খুব ছটফট করছে।আমি আবার,খুব বেশি ভুলোমনা।অল্পতেই সব ভুলে যায়।কদিন হলো,তার চেহারাটা কিছুতেই মনে করতে পারছিনা।ক্লাস শুরু হলে তাকে চিনতে পারবো তো? কারণ,আমি তার নাম,রোল নাম্বার,ঠিকানা কিছুই জানিনা।সে কী আগের মতই আছে? নাকি,খুবই স্মার্ট মেয়ে যেহেতু,তাই এ কদিনে পার্লারে গিয়ে নিজের “লুক” বদলে ফেলেছে!