রামুতে তিন ফুটবল ক্রীড়া ব্যক্তিত্বের সম্মাননা অনুষ্ঠান সম্পন্ন

খালেদ শহীদ:
‘ক্রীড়াকে জাতীয় ভাবে সমৃদ্ধ করতে সাংগঠনিক কর্মকান্ডকে শক্তিশালী করতে হবে। পাশাপাশি সাবেক কৃতি খেলোয়াড়দের নৈপুণ্যতার ইতিহাসও নবপ্রজন্মের কাছে উপস্থাপনের ক্ষেত্র গড়ে তোলতে হবে। ক্রীড়া জাতীয় সমৃদ্ধির পরিচায়ক, ক্রীড়ার এ সমৃদ্ধি রামু সোনালী অতীত ক্লাবের রয়েছে। প্রতিষ্ঠার পর থেকে এ সংগঠনের কর্মকান্ড কক্সবাজার জেলায় ইতিবাচক ভূমিকা রাখছে। রামুর সাবেক খেলোয়াড়দের এ ইতিবাচক ভূমিকায় এ অঞ্চলের মানুষের মাঝে সম্প্রীতি গভীর হবে’।

রামুতে শনিবার রাতে তিন ফুটবল নেতাকে সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে সংবর্ধিত অতিথি বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে) সদস্য বিজন বড়ুয়া এসব কথা বলেন।

ফুটবল নেতৃত্বের অবদানে রামু উপজেলার ক্রীড়া গর্ব তিন সাবেক কৃতি ফুটবলারের সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, রামু সোনালী অতীত ফুটবল ক্লাবের সহ-সভাপতি ও কাউয়ারখোপ হাকিম রকিমা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কিশোর বড়ুয়া।

ক্রীড়া ঐতিহ্য জাতীয় সমৃদ্ধির পরিচায়ক এ প্রতিপাদ্যে শনিবার ১৪ মে রাত ৮টায় রামু এভারেষ্ট টিচিং ইনষ্টিটিউটে ফুটবল নেতাদের এ সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত হয়।

রামু সোনালী অতীত ফুটবল ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক পলক বড়ুয়া আপ্পু’র স্বাগত বক্তব্যে অনুষ্ঠিত সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে সংবর্ধিত অতিথির বক্তব্য রাখেন, ক্রীড়াগর্ব ব্যক্তিত্ব বিজন বড়ুয়া, সুবীর বড়ুয়া বুলু ও ছিদ্দিক আহমদ।

বাফুফে’র সদস্য বিজন বড়ুয়া বলেন, রামুতে প্রতিষ্ঠা পাচ্ছে ‘ফুটবল ভাষ্কর্য’। এ ফুটবল ভাষ্কর্যের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ বিশ্বের ফুটবল ইতিহাসে স্থান করে নিবে অচিরেই। রামু, ককক্সবাজার, চট্ট্রগ্রামের ফুটবল ইতিহাসকে সমৃদ্ধ করার অঙ্গীকারে তিনি আরো বলেন, এ অঞ্চলের ক্রীড়াঙ্গনের উন্নয়নে কাজ করা হবে। রামুর খেলোয়াড়রা জাতীয় পর্যায়ে অবদান রাখবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করে বিজন বড়ুয়া বলেন, সাংগঠনিক ও ক্রীড়াঙ্গনে সমৃদ্ধি অর্জনের মাধ্যমে সাবেক খেলোয়াড়দের সংগঠন রামু সোনালী অতীত ফুটবল ক্লাব আরো শক্তিশালী হবে। ফুটবলে রামু হবে বাংলাদেশের আইডল।

কক্সবাজার জেলার ফুটবল গর্ব রামু সোনালী অতীত ফুটবল ক্লাবের সদস্য বিজন বড়ুয়া বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) দ্বিতীয় বার সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। রামু ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক ও রামু সোনালী অতীত ফুটবল ক্লাবের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য সুবীর বড়ুয়া বুলু এবং রামু সোনালী অতীত ফুটবল ক্লাবের সভাপতি ছিদ্দিক আহমদ সম্প্রতি অনুষ্ঠিত কক্সবাজার ফুটবল এসোসিয়েশনের (ডিএফএ) নির্বাচনে সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। ফুটবল নেতৃত্বের অবদানের জন্য কক্সবাজার জেলার তিন ক্রীড়াগর্ব ব্যক্তিত্বকে অভিনন্দন ও সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানের আয়োজন করে রামু সোনালী অতীত ফুটবল ক্লাব।

index copy

রামু সোনালী অতীত ফুটবল ক্লাবের যুগ্ম-সম্পাদক খালেদ শহীদের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন) রামু উপজেলার সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ইজত উল্লাহ, ফতেখাঁরকুল ইউনিয়ন পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ফরিদুল আলম, রামু সোনালী অতীত ফুটবল ক্লাবের সহ-সভাপতি মো. নবু আলম, সম্মাননা প্রদান উপ-পরিষদের আহ্বায়ক মো. রুহুল আমিন রকি প্রমুখ।

সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে অতিথিদের ক্রেষ্ট ও পুষ্পস্তবক দিয়ে সংবর্ধিত করেন, রামু সোনালী অতীত ফুটবল ক্লাবের সহ-সভাপতি মো. নবু আলম, সাধারণ সম্পাদক পলক বড়ুয়া আপ্পু, যুগ্ম-সম্পাদক খালেদ শহীদ, ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক মো. রুহুল আমিন রকি, দপ্তর ও প্রচার সম্পাদক ওমর ফারুক মাসুম ও সদস্য মো. নুরুল আলম।

অনুষ্ঠানে রামু সোনালী অতীত ফুটবল ক্লাবের প্রয়াত নির্বাহী সদস্য নিকাশ বড়ুয়া, সদস্য পরিতোষ চক্রবর্তী বাবুল ও মমতাজুল আলম স্মরণে সম্মান জানিয়ে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করেন, সংবর্ধিত অতিথি সহ উপস্থিত সূর্ধীবৃন্দ ও রামু সোনালী অতীত ফুটবল ক্লাব নেতৃবৃন্দ।